চা তো খেয়েছেন অনেকভাবেই! একবার এই দুর্দান্ত উপায়ে বানিয়ে দেখুন চা, এক চুমুকেই হবে পছন্দ!

নিজস্ব প্রতিবেদন : চা এমন একটি পানীয় যা সকল বয়সের মানুষ কিন্তু অত্যন্ত পছন্দ করে থাকেন। তবে বহু মানুষ কিন্তু এমন রয়েছেন যারা পারফেক্টভাবে চা বানানোর পদ্ধতি জানেন না। তাই আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনের মাধ্যমে আমরা সেই সমস্ত মানুষদের উদ্দেশ্যে পারফেক্ট চা বানানোর একটি পদ্ধতির শেয়ার করে নেব যা সকলেরই অত্যন্ত কাজে লাগতে চলেছে। সুতরাং চলুন আর দেরি না করে আমাদের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক । 

পারফেক্ট চা বানানোর বিশেষ পদ্ধতি:

পারফেক্ট পদ্ধতিতে চা বানানোর জন্য আপনাদের প্রথমেই কিছুটা পরিমাণ আদা আর এলাচ নিয়ে একটি পাত্রের মধ্যে ভালো করে থেঁতলে নিতে হবে। আদা এবং এলাচের তৈরি ফ্লেভার চায়ের মধ্যে যদি আপনারা প্রয়োগ করেন তাহলে কিন্তু এর স্বাদ একেবারে দ্বিগুণ হয়ে যায়। আদা এবং এলাচ থেতলা নেওয়ার পরে আপনাদের যে কাজটি করতে হবে সেটা হল একটা পাত্রের মধ্যে পরিমাণ মতো জল নিয়ে তা ভালো করে গরম করে নিতে হবে।

এবার যতক্ষণ পর্যন্ত না জল ভালো করে গরম হয়ে যাচ্ছে ততক্ষণ আপনাদের অপেক্ষা করতে হবে। এরপর আপনাকে জলের মধ্যে পরিমাণ মতন চিনি দিয়ে দিতে হবে। আপনারা চায়ে যতটা পরিমাণ মিষ্টি খেতে ভালোবাসেন ঠিক ততটাই চিনি এখানে ব্যবহার করবেন। চিনি ভালোভাবে জলের মধ্যে গুলে গেলে এখানে আপনাদের কিছুটা পরিমাণ আদা আর এলাচ দিয়ে যে পেস্ট তৈরি করে রেখেছিলেন সেটাকে দিয়ে দিতে হবে।

মিনিটখানেক সময় জলের মধ্যে আদা আর এলাচের ওই পেস্ট দিয়ে ফুটিয়ে নিলেই কিন্তু দেখবেন জলের মধ্যে চায়ের ফ্লেভার সম্পূর্ণরূপে চলে এসেছে। এরপর এক থেকে দুই চামচ পরিমাণ চা পাতা আপনাদের এখানে মিশিয়ে দিতে হবে। চা বানানোর কিন্তু আলাদা ধরনের অনেক পদ্ধতি হয়ে থাকে। অনেক মানুষ রয়েছেন যারা এভাবে জলের মধ্যেই চায়ের পাতা দিয়ে থাকেন।

আবার অনেকেই কিন্তু আলাদা করে জল গরম করে পরে চায়ের পাতা কাপের মধ্যে একেবারে মিশিয়ে থাকেন।। এরপর আপনাদের চায়ের মধ্যে দিয়ে দিতে হবে দুধ। অবশ্যই চেষ্টা করবেন এই দুধ কাঁচা অবস্থাতেই ব্যবহার করার। তাহলে চা খেতেও খুব ভালো হয় আর খুব ঘন হয়।। যদি আপনারা চায়ের জন্য এক কাপ জল নিয়ে থাকেন সে ক্ষেত্রে কিন্তু এক কাপ পরিমানেই দুধ ব্যবহার করবেন।

এরপর একটা ছোট পাত্রের মধ্যে আপনাদের কিছুটা পরিমাণ জল নিয়ে তাতে সামান্য গুঁড়ো দুধ মিশিয়ে দিতে হবে। এই গুঁড়ো দুধ যদি আপনারা চায়ের মধ্যে মিশিয়ে দেন তাহলে কিন্তু এর স্বাদ কতটা পরিমাণে বেড়ে যেতে পারে সেই সম্পর্কে আপনাদের কোন ধারনাই নেই।। পাত্রের মধ্যে চিনি দুধ আর চা পাতা ভালোভাবে ফুটে যাওয়ার পরে এই গুঁড়ো দুধের মিশ্রণটি সেখানে ঢেলে আরো মিনিট দুয়েক সময় ফুটিয়ে নিলেই কিন্তু তৈরি হয়ে যাবে আপনাদের চা।

এরপর খুব সহজেই ছাঁকনির সাহায্যে ছেঁকে নিয়ে আপনারা গরম গরম এটা পরিবেশন করতে পারেন। সকাল থেকে শুরু করে রাত যে কোন সময়ই আপনারা কিন্তু এভাবে চা বানিয়ে খেতে পারেন।

Leave a Comment