রুটি বানানোর সময় এবার থেকে আটাতে মেশান এই ২টি জিনিস, রুটি হবে যেমনি নরম তেমনি পুষ্টিকর

নিজস্ব প্রতিবেদন: আমাদের দেশের প্রধান খাদ্যের মধ্যে অন্যতম ভাত আর রুটি। ভাত বেশ সহজে তৈরি করা গেলেও রুটি তৈরি করার সময় কিন্তু গৃহিণীরা বেশ সমস্যায় ভুগে থাকেন। অনেকেরই অভিযোগ রয়েছে রুটি নরম অবস্থায় থাকে না বা এটা খেলে গ্যাস হয়ে যায়।

আজকে এই সমস্ত সমস্যা দূর করতে আমরা গৃহিণীদের জন্য নিয়ে এসেছি বিশেষ টিপস। বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আলোচনা করতে চলেছি আটার সঙ্গে কোন দুটি জিনিস মিশিয়ে রুটি তৈরি করলে রুটি যেরকম স্বাদের সেরা হবে, ঠিক তেমনভাবেই হবে নরম এবং পুষ্টিকর। চলুন তাহলে আর সময় নষ্ট না করে আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক।

রুটি তৈরির সঠিক পদ্ধতি:

প্রথমেই আপনাদের রুটি তৈরি করার জন্য নির্দিষ্ট পরিমাপে আটা নিয়ে নিতে হবে। মোটামুটি আড়াইশো গ্রাম আটা নিয়ে তার মধ্যে সামান্য লবণ মিশিয়ে নিন। লবণ মিশিয়ে নেওয়ার পরে আপনাদের নিয়ে নিতে হবে এক কাপ পরিমাণে হালকা গরম জল এবং এক কাপ পরিমাণে হালকা গরম দুধ।রুটি তৈরিতে আটা মাখার জন্য যদি হালকা গরম দুধের ব্যবহার করা হয় তাহলে কিন্তু রুটি খুবই নরম হয়। এবার একটি বাটির মধ্যে আপনাদের নিয়ে নিতে হবে কিছুটা পরিমাণের টক দই।

আপনারা কিন্তু দুধ আর টক দই এর মধ্যে যে কোন একটি ব্যবহার করতে পারেন। এবার আপনাদের নিয়ে নিতে হবে কিছুটা পরিমাণে ওটস। এটি কিন্তু যে কোন মুদিখানার দোকানে আপনারা খুব সহজেই কিনতে পেয়ে যাবেন। এটি আমাদের শরীরের জন্য ভীষণভাবে উপকারী। ওটস হজমের নিয়ন্ত্রণে কিন্তু সাহায্য করে থাকে। এবার এই ওটস আপনাকে গুঁড়ো করে আটার মধ্যে দিয়ে দিতে হবে। হালকা গরম দুধ এবং যে জল রেখেছিলেন সেটাকে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে।

এবার দুধ আর জল মিশিয়ে হালকা করে আপনারা এবার আটা মাখতে শুরু করুন। প্রসঙ্গত দুধ দিয়ে রুটি তৈরি করলে কিন্তু এর স্বাদ দারুন ভাবে তৈরি হয়। তবে যেহেতু এটি দৈনন্দিন খাবার তাই দুধ দিয়ে তৈরি করা কিন্তু সম্ভব নাই হতে পারে সকলের পক্ষে। আটা ভালো করে মেখে নেওয়ার পর আপনাকে গোল করে লেচি কেটে নিতে হবে। তারপর সেটাকে বেলনের সাহায্যে ভালো করে বেলে নিন। অবশ্যই বেলার সময় শুকনো আটা মাখিয়ে নিতে ভুলবেন না।

এবার গ্যাসের তাওয়া বসিয়ে আপনাদের ভালো করে রুটি গুলিকে দুই পিঠে সেকে নিতে হবে। এভাবে সমস্ত কটা রুটি যদি আপনারা তৈরি করে নিতে পারেন তাহলেই কিন্তু দেখবেন গৃহিনীদের সমস্যার সমাধান হয়ে গিয়েছে। আসলে রুটি তৈরি করার সময় আমরা প্রায় ক্ষেত্রে অনেক ভুল করে থাকি। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা গৃহিণীদের সেই ভুল দূর করার চেষ্টা করেছি। তাই অবশ্যই এবার থেকে রুটি বানানোর সময় আপনারা স্টেপ বাই স্টেপ পদ্ধতি ফলো করবেন। এই ধরনের আরো বিশেষ টিপস সম্পর্কে জানতে হলে আমাদের পোর্টালের পাতায় নজর রাখতে থাকুন।

Back to top button