পিতল তামার বাসন নতুন চকচকে করতে চান? রইলো কিছু ঘরোয়া উপায়

নিজস্ব প্রতিবেদন :আমাদের প্রত্যেকের বাড়িতেই কিন্তু পুজোর কাজ থেকে শুরু করে বিভিন্ন কাজে তামা, পিতল অথবা রুপোর বাসন ব্যবহার করা হয়ে থাকে। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় এই সমস্ত বাসনপত্র গুলি কিন্তু দীর্ঘ সময় ধরে পরিষ্কার করা হয়ে ওঠে না। যার ফলস্বরূপ অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই এগুলিতে একপ্রকার দাগ হয়ে যায় এবং ধীরে ধীরে একেবারে পুরনো হতে শুরু করে।

আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা এমন কয়েকটি পদ্ধতি আপনাদের সাথে শেয়ার করে নেব যাতে তামা,পেতল বা রুপোর বাসন একেবারে নতুনের মতন চকচকে হয়ে উঠবে। খুব সহজ উপায়ে বেশি কোন অর্থ খরচ না করেই কিন্তু বাড়িতে আপনারা এই পদ্ধতিগুলি প্রয়োগ করতে পারবেন।। চলুন তাহলে আর দেরি না করে আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক। প্রয়োজনে আপনারা অবশ্যই আমাদের প্রতিবেদনের সঙ্গে থাকা ভিডিওটি দেখে নিতে পারেন।

  • তামা,পেতল অথবা রুপোর বাসন পরিষ্কার করার পদ্ধতি:

১) প্রথম উপায়:

তামা,পেতল অথবা রুপোর বাসন পরিষ্কার করার জন্য যে প্রথম উপায়টি আমরা প্রয়োগ করবো তাতে একটি লেবু নিয়ে নিতে হবে। এবারে পাতিলেবুটিকে আপনারা মাঝ বরাবর কেটে নিন। একটি পাত্রের মধ্যে কিছুটা পরিমাণ বেকিং সোডা নিয়ে লেবুর একটি অংশকে সোডার মধ্যে ঘষে, যে বাসনগুলি আপনারা পরিষ্কার করবেন তার মধ্যে আলতো হাতে ঘষতে থাকুন।

মোটামুটি তিন থেকে চার মিনিট সময় এরকম ভাবে ঘষে নিলেই কিন্তু দেখবেন প্রত্যেকটি বাসন একেবারে নতুনের মতন ঝকঝক করে উঠছে। সবশেষে আপনারা নরমাল জল দিয়ে ধুয়ে কিছুটা ঘিয়ের প্রলেপ দিয়ে দিতে পারেন।। যদি এই ঘি এর প্রলেপ দিয়ে দেন তাহলে দীর্ঘ সময় পর্যন্ত আপনাদের বাসন ভালো থাকবে আর কোন রকমের কালচে ভাব দেখা দেবে না। সবশেষে বলবো যে আপনারা কিন্তু অবশ্যই তামা পেতল অথবা রুপোর বাসন জলে ধুয়ে নেওয়ার পরে শুকনো কাপড় দিয়ে মুছে নেবেন। কারণ এই বাসন গুলির গায়ে যদি জল লেগে থাকে সেক্ষেত্রেও কিন্তু দাগ পড়ে যেতে পারে।

২) দ্বিতীয় উপায়:

দ্বিতীয় পদ্ধতিতে আমাদের এই জাতীয় বাসন পরিষ্কার করার জন্য নিয়ে নিতে হবে সাইট্রিক অ্যাসিড। এটা অত্যন্ত কার্যকর পদ্ধতি। বাজারের যেকোন দোকানে এবং অনলাইন মার্কেটে আপনারা কিন্তু খুব সহজেই সাইট্রিক অ্যাসিড কিনতে পেয়ে যাবেন। এবারে একটি পাত্রের মধ্যে আপনাদের সামান্য পরিমাণে লবণ আর এই সাইট্রিক অ্যাসিড অল্প একটু জলের সাহায্যে মিশিয়ে নিতে হবে।

এবারে যে মিশ্রণটি তৈরি হবে তা হাতের সাহায্যে যে বাসনগুলি আপনারা পরিষ্কার করবেন তার উপরে আলতো প্রলেপ লাগিয়ে দিন। এটা এমন একটা মিশ্রণ যা কিন্তু লাগানোর সাথে সাথেই তামা অথবা পেতলের বাসন একেবারে ঝকঝকে পরিষ্কার হয়ে যাবে। আপনার কয়েক সেকেন্ডও অপেক্ষা করার দরকার নেই। চাইলে এই কাজে আপনারা কিন্তু স্ক্রাবার ইউজ করতেও পারেন।

উপরিউক্ত এই দুটি পদ্ধতি ছাড়াও আপনারা আরও একটি পদ্ধতিতে তামা-পেতলের বাসন সহজেই পরিষ্কার করে নিতে পারেন। তার জন্য আপনাদের একটি পাত্রের মধ্যে দই আর আমচুর পাউডার মিশিয়ে নিতে হবে। আপনারা অবশ্যই তিন থেকে চার দিনের পুরনো দই এই কাজে ব্যবহার করবেন। চাইলে আপনারা এই মিশ্রণের মধ্যে কিছুটা পরিমাণ লেবুর রসও ব্যবহার করতে পারেন।। এবার একটি স্ক্রাবারের সাহায্যে মিশ্রণটি নিয়ে ভালো করে তামার বাসনের মধ্যে ধীরে ধীরে ঘষে নিলেই দেখবেন সমস্ত ময়লা উঠে এটা একেবারে নতুনের মতন চকচকে হয়ে যাচ্ছে।

তবে চেষ্টা করবেন এটাকে 15 মিনিট পর্যন্ত মিশ্রণ লাগিয়ে রেখে দেওয়ার। তারপর আরেকটু ঘষে যদি জলে ধুয়ে নেন তবে বেশি ভালো কাজ দেবে। আজকের এই টিপস গুলোর মধ্যে কোনটা আপনাদের সব থেকে বেশি কাজে লাগলো বা ভালো লাগলো তা কিন্তু অবশ্যই আমাদের সাথে শেয়ার করে নিতে ভুলবেন না। এই ধরনের কোন বিশেষ টোটকা আপনাদের জানা থাকলে তা আমাদের পাঠকদের সুবিধার্থে অবশ্যই প্রতিবেদনের কমেন্ট বক্সে শেয়ার করে নিতে পারেন।।

Back to top button