মুখের স্কিনে স্পষ্ট বয়সের ছাপ? খুব সহজ ঘরোয়া উপায়ে অপরাজিতা ফুলের তৈরি এই নাইট ক্রিম মেখে দেখুন, ফলাফল পাবেন হাতেনাতে!

নিজস্ব প্রতিবেদন: দৈনন্দিন কাজের ব্যস্ততার মাঝেই অনেকেই আছেন এমন যারা হয়তো নিজেদের ত্বকের যত্ন নিতে ভুলে যান। বিশেষ করে বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই কিন্তু আমাদের সকলের ত্বকেই নানান ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। কারুর হয়তো ডার্ক সার্কেল পড়ে যায়, আবার কারুর বাপ বয়স বাড়তে না বাড়তেই দেখা যায় বয়সের ছাপ বা রিংকেলস। বাজার চলতি বিভিন্ন ক্রিম ব্যবহার করে এগুলো দূর করা যেতে পারে তবে সেটা যেমন খরচসাপেক্ষ ঠিক ততটাই সময়সাপেক্ষ।

তারপর এই সমস্ত ক্রিমের মধ্যে আজকাল কিন্তু নারান ধরনের কেমিক্যাল মেশানো হয়ে থাকে যা ত্বকের জন্য অত্যন্ত বেশি রকমের ক্ষতিকর। সুতরাং আপনাদের কিন্তু আগেকার দিনের ঘরোয়া উপায় এই ক্ষেত্রে অনেকটাই কাজে দিতে পারে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আপনার সাথে একটি নাইট ক্রিম তৈরির পদ্ধতি শেয়ার করে নেব যা যদি বাড়িতে বানিয়ে আপনারা প্রতিদিন লাগাতে পারেন, তাহলে ত্বকের পরিবর্তন নিজের চোখেই দেখতে পারবেন। একবার বানিয়ে এটাকে আপনারা দীর্ঘদিন পর্যন্ত সংরক্ষণ করেও রেখে দিতে পারবেন। একটি ফুলের সাহায্যে এই নাইট আমরা বানাবো; সেই ফুলটি হল অপরাজিতা বা নীলকন্ঠ ফুল। চলুন তাহলে আর দেরি না করে আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক।

  • অপরাজিতা ফুল দিয়ে তৈরি এই নাইট ক্রিমের উপকারিতা:

ক্রিমটি তৈরি করার আগে প্রথমেই আপনাদের জানিয়ে রাখি এর উপকারিতা কি কি। প্রতিদিন রাতে শোয়ার আগে যদি আপনারা এই ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন তাহলে খুব সহজেই কিন্তু আপনাদের ত্বকে বয়সের ছাপ পড়বে না। পাশাপাশি আপনাদের ত্বক হয়ে উঠবে কোমল মোলায়েম ও উজ্জ্বল। ডার্ক সার্কেল বা রিঙ্কেলস থেকে বহু সময় পর্যন্ত আপনাদের ত্বক দূরে থাকবে। ত্বকের ময়শ্চারাইজার ভাব ধরে রাখতেও কিন্তু এই নাইট ক্রিম আপনাদের সাহায্য করতে পারে। অতএব প্রতিদিন রাত্রে শোয়ার আগে এটা আপনারা নিয়ম করে ব্যবহার করুন।

  • ক্রিম তৈরির পদ্ধতি:

১)ক্রিম তৈরির জন্য আপনাদের মোটামুটি 8 থেকে 10 টা অপরাজিতা ফুল নিয়ে নিতে হবে। ফুলগুলির নিচের অংশে দেখবেন একটি সবুজ মতন থাকে সেটাকে প্রথমেই আপনাদের সরিয়ে দিতে হবে। এরপর একটি পরিষ্কার জারের মধ্যে আপনাদের ফুলগুলিকে তুলে নিতে হবে। এই জারের মধ্যে গরম জল ঢেলে দিন। এরপর জারে ঢাকনা বন্ধ করে কিছুক্ষণ রেখে দিন এবং ভেতরের অংশে পরিবর্তন দেখতে থাকুন। দেখবেন ফুল থেকে ধীরে ধীরে সমস্ত নির্যাস বেরিয়ে জলের মধ্যে কিন্তু মিশে যাচ্ছে। মোটামুটি ১০ থেকে ১৫ মিনিট পরেই কিন্তু আপনারা ক্রিম তৈরির কাজ শুরু করতে পারেন।

২) দ্বিতীয় ধাপে আপনাদের প্রথমেই একটি মিক্সি ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। তারপর ওই জল সমেত ফুলগুলিকে ভালো করে মিক্সিতে বেটে নিতে হবে। এবারে বেটে নেবার পরে একটা সুতির কাপড় ব্যবহার করে অপর একটি পাত্রের মধ্যে এই ফুল মিশ্রিত জল আপনাকে ছেঁকে নিতে হবে। এবার একটি অন্য বাটিতে আপনাদের নিয়ে নিতে হবে কিছুটা পরিমাণে কর্নফ্লাওয়ার। খুব সহজেই বাজারের মুদির দোকান থেকে আপনারা এটা কিনতে পেরে যাবেন। এবার কনফ্লাওয়ার এর মধ্যে ফুলের নির্যাস যুক্ত জল ঢেলে দিতে হবে। জানিয়ে রাখি এই নির্যাস যুক্ত জল কিন্তু আপনারা টোনার হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন। তবে আজ আমরা শুধু ক্রিম তৈরির কথা বলব।

৩) এবার আপনাদের গ্যাসে একটি কড়াই বসিয়ে তাতে কিছুটা পরিমাণ জল গরম করে নিতে হবে। এরপর কর্নফ্লাওয়ার আর ফুলের নির্যাস মিশ্রিত জল যে বাটিতে আপনারা রেখেছিলেন সেটাকে এই কড়াইয়ের উপর দিয়ে ডবল বয়েল করে নিতে হবে। তাপে কিন্তু ধীরে ধীরে এটা গাঢ় হতে শুরু করবে। মোটামুটি পাঁচ থেকে ছয় মিনিটের মধ্যেই কিন্তু এই মিশ্রণটি সম্পূর্ণরূপে ঘন হয়ে যাবে।

এরপর একটা অন্য পাত্রের মধ্যে আপনাকে নিয়ে নিতে হবে দুই থেকে তিন চামচ পরিমাণ অ্যালোভেরা জেল, তিনটি ভিটামিন ই ক্যাপসুল। অ্যালোভেরা জেল আর ভিটামিন ই ক্যাপসুল ভালো করে মিশিয়ে নেওয়ার পরে ফুল আর কর্নফ্লাওয়ার এর মিশ্রণটিকে আপনাদের এর মধ্যে ঢেলে দিতে হবে। অ্যালোভেরা জেলের সঙ্গে মিশে গিয়ে এটা কিন্তু সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক রঙে রূপান্তরিত হয়ে যাবে।

৪) সর্বশেষ ধাপে আপনাকে এই মিশ্রণের মধ্যে যোগ করে দিতে হবে আলমন্ড অয়েল। যদি আপনার কাছে আলমন্ড অয়েল না থাকে সেক্ষেত্রে নারকেল তেলও কিন্তু আপনারা ব্যবহার করতে পারেন।। আমাদের তো এক সুন্দর কোমল মশ্চারাইজিং করতে নারকেল তেল কতটা কাজে লাগে তা কিন্তু আপনারা প্রায় কম বেশি সকলেই জানেন। পাশাপাশি এই তেলটি আমাদের প্রত্যেকের বাড়িতেই সহজলভ্য।

ব্যাস এই সমস্ত উপকরণ একসাথে মিশিয়ে নেওয়ার পরে ক্রিমের কনসিসটেন্সি ঠিক করার জন্য সামান্য পরিমাণ ফুল মিশ্রিত জল আপনারা এখানে যোগ করে দিতে পারেন। ক্রিম তৈরি করার আগে তাই অবশ্যই সেই জলের নির্যাস কিন্তু একটু আলাদা করে রেখে দিতে ভুলবেন না। ব্যাস তৈরি হয়ে গেল আপনাদের অতি প্রয়োজনীয় নাইট ক্রিম। রেগুলার ব্যবহার করুন আর ফলাফল নিজেরাই দেখুন।

Back to top button