বাংলাদেশে খোঁজ মিলল মিস্টার বিনের ভাইয়ের, দারুণ কায়দায় দুর্দান্ত ভাবে হাসালেন তিনি , ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আমরা মাঝেমধ্যেই টেলিভিশনে মাধ্যমে এমন কিছু জিনিসের সন্ধান পেয়ে থাকি যা চির স্মরনীয় হয়ে থাকে বছরের পর বছর ধরে । কারণ সেই সমস্ত সম্পদ এতটাই মূল্যবান হয় যে আমরা কখনই সেগু-লিকে ভুলতে পারিনা । তার পাশাপাশি যেহেতু আমরা উন্নত হয়েছে অনেকখানি । তাই টিভির পর্দা ছেড়ে চোখ রেখেছি স্মার্ট ফোনের ডিসপ্লেতে । এবং সেখানে খুঁজে পাচ্ছি নিজেদেরকে নতুনভাবে । সোশ্যাল মিডিয়া এখন প্রতিটি ছেলেমেয়েদের কাছে অধিক জনপ্রিয় একটি মাধ্যম ।

জীবনের যা কিছু খুঁটিনাটি বিষয় সেটি রা-গ হতে পারে দুঃ-খ হতে পারে কা-ন্না অ-ভিমান হাসি-আনন্দ যা কিছু হতে পারে সেগুলো শেয়ার করে রাখে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ও সোশ্যাল মিডিয়া প্রতিনিয়ত জনপ্রিয়তা পাচ্ছে আমাদের এই প্রজন্মের কাছে । আমাদের আগের প্রজন্ম অর্থাৎ যারা ৯০ দশকের জন্মগ্রহণ করেছে তারা একটি নামের সাথে এবং একটি রিয়েলিটি শো এর সাথে যথেষ্টভাবে পরিচিত এবং সেই অনুষ্ঠানের নাম হলো মিস্টার বিন । নামটা শুনেই নিশ্চয়ই আপনার মুখে এক চিলতে হাসি ফুটে উঠেছে ।

কারণ মিস্টার বিনের চরিত্রটা কিছুটা সেরকমই । যাকে দেখলে আমরা এসে লু-টোপু-টি খেতে পারি । কোন রকম কোন মুখে কথা না বলে শুধুমাত্র ভঙ্গিমার মাধ্যমে মানুষকে যে আনন্দ দেওয়া যেতে পারে বা হাসিযে তোলা যেতে পারে সেটি প্রথম প্রমাণ করেছিলেন এই মিস্টার বিন । যার আসল নাম। রোয়ান সেবাস্টিয়ান অ্যাটকিনসন। ১৯৯০-এর ১ জানুয়ারি ব্রিটিশ চ্যানেল আইটিভি-তে মিস্টার বিনের প্রথম এপিসোড সম্প্রচারিত হয়। এই চরিত্রের জন্য ব্রিটিশ অভিনেতা রোয়ান অ্যাটকিনসনের ভক্ত সারা বিশ্বজোড়া।তিশা একজন তিনি ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন এবং উচ্চশিক্ষিত ছিলেন ।

তারপরও মোটা মাইনের চাকরি কে উপেক্ষা করে যুক্ত হয় অভিনয় জগতের সাথে শুধুমাত্র মানুষকে আনন্দ দেবে বলে । এবার ঠিক মিস্টার বিন এর মত দেখতে ও ভঙ্গিমার মানুষ দেখা গেল বাংলাদেশ এ । একদম ঠিক শুনেছেন বাংলাদেশে দেখা মিলল মিস্টার বিনের আলাদা ভার্সন এর । এবং বর্তমান সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে তিনি বাংলাদেশে মিষটারবিন নামে পরিচিতি পেয়েছে । তার আদব-কায়দা চালচলন কথা বলার স্টাইল সবকিছু মিস্টার বিন এর মত । যার ফলে খুব অল্প সময়ের মধ্যে এসে জনপ্রিয়তা পেয়েছে ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button