সুস্থ ও স্বাভাবিক সন্তান পেতে শা’রীরিক স’ম্পর্কের আগে যে ১০ নিয়ম মেনে চলা খুবই জরুরি!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আমরা আমাদের পছন্দের মানুষকে সব সময় জীবনসঙ্গী হিসেবে পাওয়ার জন্য অ-ক্লান্ত প-রিশ্রম করে চলি । বর্তমান প্রজন্মের প্রতিটি ছেলে এবং মেয়ে নিজেদের ক্যারিয়ার কে সুপ্রতিষ্ঠিত করার পিছনে ছুটে চলেছে । এবং যখন তারা নিজেদের ক্যারিয়ার প্রতিষ্ঠা করতে পারছে বা জীবনে সফল হতে পারছে তখন দেখা যাচ্ছে বয়স ৩০ এর গণ্ডি পেরিয়ে গেছে । ছেলে মেয়ে উভয় ক্ষেত্রে এ ধরনের প্রভাব লক্ষ্য করা যায় । যার ফলে ফিউচার প্লান বা ভবিষ্যতের পরিকল্পনা সঠিক মাত্রায় হয়ে উঠতে পারে না । এর জন্য বিভিন্ন ডা-ক্তারের কাউন্সিলিং বা পরামর্শ দরকার পড়ে মাঝে মধ্যে । কিন্তু বিয়ে করার আগে বা সন্তান প্রসবের আগে এই ধরনের সমস্যা গু-লি সম্পর্কে অবশ্যই আপনার জানা দরকার নইলে কিন্তু ভ-বিষ্যৎ অ-ন্ধকার হয়ে যেতে পারে আপনার ।

থ্যালাসেমিয়া স্ক্রীনিং :- যদি থ্যা-লাসেমিয়া বাহক এর সাথে থ্যা-লাসেমিয়া বাহক এর বিবাহ হয় তাহলে তাদের সন্তানেরা এই রোগে আ-ক্রান্ত হবার সম্ভাবনা থাকে প্র-বল পরিমাণে তাই বিয়ের আগে এবং সন্তান ধারণের আগে অতি অবশ্যই থ্যা-লাসেমিয়া স্ক্রীনিং করাটা জরুরী।

পিসিওডি:- এই ধরনের স-মস্যা লাইফ স্টাইল এর ক্ষেত্রে ঘটে থাকে । অর্থাৎ যদি কোনো কারণে মেয়েরা অতিরিক্ত বাইরের জা-ঙ্কফুড বা অনিয়মিত জীবনযাত্রা পালন করে তাহলে তাদের ক্ষেত্রে এই ধরনের স-মস্যা দেখা দেয় । নিয়মমাফিক খাবার-দাবার খেলে এবং জীবনকে একটি রুটিন মাফিক নিয়মে বেঁধে রাখলে এই অসুখ নিমিষের মধ্যে পালায় ।

কোনো কারণে যদি আপনার অতিরিক্ত মেদ হয়ে যায় শরীরে তাহলে সেটি আপনার গ-র্ভধারণের ক্ষেত্রে স-মস্যা সৃষ্টি করতে পারে । প্র-স্রাবের জ্বা-লা ইত্যাদির মতো স-মস্যা দেখা যায় । সেই মুহূর্তে তাই মেয়েদের শ-রীরকে ঝরঝরে করে রাখুন তার পাশাপাশি নিয়মমাফিক চলুন । ফার্টাইল পি-রিয়ড মিথ- পি-রিয়ড শুরু এক সপ্তাহ আগে ও শেষ হওয়ার পর ১০ দিন হল ফার্টাইল পি-রিয়ড। এমনিতে ফার্টাইল পি-রিয়ডে নিয়মিত শারীরিক সুস্থ সম্পর্কের পরামর্শ দেয়া হয়।

তবে আধুনিক চি-কিসাবিজ্ঞানে বলা হয় আ’দর্শ ফার্টাইল পিরিয়ড’ বলে সে অর্থে কিছু হয় না। সাধারণত একটি নির্দিষ্ট সময়কে এমন ধরা হলেও শারীরিক অবস্থা অনুযায়ী এই নিয়ম কিছুটা বদলায়।অনেকেরই পি-রিয়ড অনিয়মিত হয়। তেমনটা হলে চি-কিৎ-সকের পরা’মর্শ প্রয়োজন। রক্তের সিরাম এলএইচ মেপে বা আ-লট্রাসাউন্ড করে চি-কিৎসক জা’নাতে পারবেন কখন ডি-ম্বাণু বের হবে। সেই বুঝে শা-রীরিক স’ম্পর্কের দ’রকার পড়বে।

অ্যানিমিয়া স্ক্রীনিং :- হবু মায়ের বা আপনি যাকে বিয়ে করতে চলেছেন তার অ্যা-নিমিয়া রয়েছে কিনা সে ব্যাপারে আপনার জানা দরকার । যদি এমনটা থেকে থাকে তাহলে বাইরের জিংক জাতীয় খাবার বা ও-ষুধ পত্র অযথা খাবেন না । বরং তৎক্ষণাৎ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন ।অবশ্যই এটি খুব তাড়াতাড়ি নিরাময় হয়ে ওঠে যদি সঠিক সময়ে চি-কিৎসা করান ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button