সাইকেলে করে 1,200 কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে সোনু সুদের সঙ্গে দেখা করতে এলেন তার এক ভক্ত! দেখা পেয়েই সোনু যা করলেন! দারুন ভাইরাল হল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- যখন দেশে একের পর এক মৃত্যুর মিছিলে সংখ্যা বেড়েই চলেছে সেই মুহূর্তে দাঁড়িয়ে মানুষদেরকে পুনরায় জীবনে বাঁচার আশা জাগিয়েছিলেন যে মানুষটি তিনি হলেন সনু সুদ একদম ঠিক শুনেছেন । না তিনি কোনো ক্ষমতাই নেই বরং খুব সাধারণ একজন অভিনেতা । অভিনেতার আয় কতটুকু? কিন্তু তিনি তার সারা জীবনের সঞ্চয় দিয়ে যতটা পেরেছেন ততটা সাহায্য করেছেন সাধারণ মানুষের । রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা শ্রমিক ভাই-বোনেদের কে নিজের সম্পত্তি বন্ধক রেখে বাড়িতে ফিরিয়ে দিয়েছেন ।

তুলে দিয়েছেন ক্ষুধার্তদের মুখে খাবার । তাইতো সনু সুদ ভারতবাসীর কাছে ভগবানের অন্যতম এক হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে । শুধু মাত্র এখানেই তিনি থেমে গেছেন তেমন কিন্তু নয় । তার পাশাপাশি বিভিন্ন সরকারি এবং বেসরকারি হাসপাতালে অক্সিজেন প্লান্ট বসেছেন তিনি সম্পূর্ণ নিজের টাকা পয়সা খরচা করে । তবে এই অনুরাগ সংখ্যা নেহাত কম নয় । গোটা ভারত বর্ষ এবং ভারতবর্ষের বাইরে রয়েছে তার ফ্যান ফলোইং এর সংখ্যা ।

অভিনয় জগতে তিনি একজন খলনায়ক হিসেবে পরিচিতি পেলেও বাস্তব জীবনে কিন্তু তিনি আসল নায়ক ।তার প্রমাণ আমরা প্রতিনিয়ত পেয়ে যাচ্ছি । তবে সম্প্রতি যে ঘটনাটি ঘটলো তার জন্য রীতিমতো প্রস্তুত ছিল না শুধু নিজেই । সম্প্রতি একটি খবর প্রকাশিত হয়েছে সোশ্যাল মাধ্যমে সেখানে জানা যাচ্ছে যে সনু সুদ এর এক ভক্ত ১২০০ কিলোমিটার একদমই ঠিক শুনেছেন ১২০০ কিলোমিটার সাইকেল চালিয়ে এসেছে সনু সুদ এর সাথে দেখা করতে ।

সামনে লাগানো ছিল সুন্দর একটা বড় পোস্টার এবং তার কাছে ছিল একটি বড় মালা যেটি তিনি সোনু কে পড়াবেন বলে নিয়ে এসেছিলেন । এবং এই ঘটনার পর যখন জানতে পারে যে এত দূর থেকে এক যুবক তার সাথে সাইকেল চালিয়ে দেখা করতে এসেছেন তখন তিনি নিজে তার সাথে দেখা করতে এলেন । তাঁর বাড়ির সামনে সেই দিন জমে গিয়েছিল দর্শকদের ভিড় ।ক্যামেরার আলোতে ঝলমলে উঠেছিল সেই যুবকের মুখ ।তার পাশাপাশি সনু সুদ তাকে জিজ্ঞেস করেছিলেন যে তিনি জুতো কেন পড়েননি । তবে এ ঘটনা প্রথম নয় এর আগেও এক ব্যক্তি ৭০০ কিলোমিটার সাইকেল চালিয়ে তার সাথে দেখা করতে এসেছিলেন । আর তিনি মনে করেন এখানেই তাঁর সাফল্য ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button