কবে থেকে চলবে লোকাল ট্রেন জানিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী! রে-গে আ’গুন সাধারণ মানুষ!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আগের মতো নেই বছরও প্রতিটি সাধারণ নিত্যযাত্রীদের মনে একটাই প্রশ্ন কবে থেকে খুলছে লোকাল ট্রেন ?কবে থেকে মানুষ আবার পুনরায় পরিষেবা পাবে এই লোকাল ট্রেনে? সেই উত্তরের জন্য অপেক্ষারত প্রত্যেকে । মুখ চেয়ে রয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিকে । কিন্তু কি জানালেন সাংবাদিক বৈঠকের পর ? সাংবাদিকদের বৈঠকের পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে মন্তব্য তুলে ধরলেন তা আজকে আপনাদের এই প্রতিবেদনে বিস্তারিত তুলে ধরবে আমরা । তার পাশাপাশি জানাবো যে এই মুহূর্তে কোন পরিস্থিতি দাঁড়িয়েছে লোকাল ট্রেন চলার কথা।

বুধবার থেকেই বিভিন্ন নিত্যযাত্রীরা অ-শান্তি করছে রেল অ-বরোধ করছে পু-লিশের সা-থে ধ্ব-স্তাধ্ব-স্তি তে নেমে পড়ছে রাস্তায় ই-ট-পা-টকেল ছো-ড়াছু-ড়ি হচ্ছে । এই বি-ক্ষিপ্ত ঘটনার জেরে পূর্ব রেলওয়ের কর্মকর্তারা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কাছে অনুমতি দিয়েছিলেন যাতে লোকাল ট্রেন পরিষেবা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব চালু করা যায় । কিন্তু রাজ্যের এই ক-রোনা প-রিস্থিতি মাথায় রেখে এখনই কোন সবুজ সঙ্কেত দিতে চাইছে না মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।

নবান্নের সাংবাদিক বৈঠকে বি-ক্ষোভের বিষয়টি সামনে আসতেই মমতা বললেন, “প্ররোচনা দেবেন না আমরা তো সব খুলে রেখেছি প্রায়। কিন্তু ট্রেন চললে ক-রোনা পরি-স্থিতি আরও খা-রাপ হ-বে। বর্তমানে দোকানপাট সব কিছু খোলা রয়েছে। আমরা ভারতের অন্যান্য জায়গার মতো এতটা ক-ড়াক-ড়ি করি-নি। অন্যান্য জায়গায় তো কারফিউ থেকে শুরু করে অনেক কিছুই হয়েছে কিন্তু আমরা গণপরিবহন বন্ধ রেখে বাকি সবকিছু চালু রেখেছি। যদি এই মুহূর্তে আমরা ট্রেন চালিয়ে দিই তাহলে দুনিয়ার লোকের ক-রোনা হয়ে যাবে।”

অপরদিকে এই অ-শান্তি চিত্র ক্রমশ আরো গভীর হচ্ছে । সেই অর্থে পূর্ব রেলের কর্মকর্তারা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে সমস্ত ঘটনা তুলে ধরে একটি চিঠি লিখলে ও সেই চিঠিতে কোনরকম গ্রাহ্য দেখায়নি রাজ্য সরকার । অপরদিকে পূর্ব রেলওয়ে কর্মকর্তাদের ওপর চা-প বা-ড়ছে তার পাশাপাশি ক্ষ-তি হচ্ছে অর্থনৈতিকভাবে অনেকটা পরিমাণে । তাই সে অর্থনৈতিক দিক থেকেও কিছুটা লাভবান হওয়ার জন্য ট্রেন চালানোর অনুমতি চাইছে পূর্ব রেল ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button