এবার নিজের বাড়ির রান্নাঘরেই নিজের হাতেই দারুন কায়দায় রান্না করে তাক লাগালেন দীপান্বিতা কুন্ডু, তুমুল ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- নাচ বা গানের মাধ্যমে আমরা মনের ভাব প্রকাশ করে থাকি এবং যত দিন যাচ্ছে ততই যেন জনপ্রিয়তা পাচ্ছে প্রত্যেক নৃত্যশিল্পীরা । আগে বহু মানুষ এই শিল্পের অধিকারী ছিল কিন্তু সময়ের অভাবে এবং প্রচার এর অ-ভাবে তারা কেন্দ্রবিন্দুতে অর্থট জনপ্রিয়তার কেন্দ্রবিন্দুতে আসতে পারেনি । কিন্তু বর্তমান যুগে যেহেতু সোশ্যাল মিডিয়া রয়েছে তাই এখন এই কাজ অত্যন্ত সহজ হয়ে গেছে আমাদের কাছে। বেশ কিছুদিন আগে জি বাংলা তে অনুষ্ঠিত হতো ডান্স বাংলা ডান্স জুনিয়ার। মূলত বাচ্চাদের নাচের রিয়েলিটি শো হত এবং এই রিয়েলিটি শো এর মুখ্য বিচারিক ছিলেন মিঠুন চক্রবর্তীর ।

একদমই ঠিক শুনেছেন সেই মিঠুন চক্রবর্তীর বাংলা অভিনয় জগতে উজ্জ্বলতম নক্ষত্র । একথা আমরা প্রত্যেকে জানি । কিন্তু সেই রিয়েলিটি শোয়ের প্রতিযোগী ছিলেন একজন যার নাম ছিল দীপান্বিতা কুন্ডু । কিন্তু মিঠুন চক্রবর্তীর তার নাচ এ মুগ্ধ হয়ে এবং তাকে ভালবেসে পান্তা ভাতের কুন্ডু বলে ডাকতেন । যেহেতু তিনি একটি নাদুসনুদুস বাচ্চা মেয়ে তাকেই ধরেন নামকরণ করা হয়েছে ।আর তারপর থেকেই সাধারণ মানুষ তাকে পান্তা ভাতের কুন্ডু নামে চেনেন।

বেশ কিছু দিন আগে সেটা নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলে এমন বেশ কয়েকটি নাচের ভিডিও শেয়ার করেন অনুগামীদের সাথে যা মুহূর্তের মধ্যে এনে দিয়েছিল তাকে খবরের শিরোনামে । সেখানে বাজলো তোমার আলোর বেণু সাথে সাথে ভিনদেশী তারা দুটি পৃথক ভিডিওতে জনপ্রিয়তা পেয়েছিল ব্যাপক পরিমাণে । তবে এবার আর নাচের ভিডিও নয় সম্প্রতি ইউটিউবে তিনি শেয়ার করেছেন একটি রান্নার ভিডিও যেটি তিনি নিজের হাতেই করেছেন ।

নাচের পাশাপাশি দীপান্বিতা কুন্ডু রান্নাতেও যে পারদর্শী সেটা প্রমান দিলেন এবার । সম্প্রতি তার নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলে তিনি একটি রান্নার ভিডিও শেয়ার করেছেন অনুগামীদের সাথে । সেখানে তিনি কি কি উপকরণ নিয়েছেন এবং কি রান্না করেছেন তা বিস্তারিত জানিয়েছেন অনুগামীদের সাথে । এমনকি প্রতিটি পরিবার যাতে এই রান্নাটা একবার চেষ্টা করে দেখে সে অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি ওই ভিডিওর মাধ্যমে । মুহূর্তের মধ্যে পৌঁছে গেছে সেই ভিডিও লক্ষ্য লক্ষ্য তার অনুগামীদের কাছে তার পাশাপাশি ব্যা-পক পরিমাণে সাড়া মিলেছে ভিডিওতে । এসেছে প্রচুর মন্তব্য সংখ্যা ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button