মিথ্যা সন্দেহে আটকে রেখে অমানবিক আচরণ, গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি জনপ্রিয় অভিনেত্রী মৈত্রেয়ী মিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন:  টেলিভিশনের একজন অত্যন্ত পরিচিত বা জনপ্রিয় মুখ হলেন অভিনেত্রী মৈত্রেয়ী মিত্র। গত ২ দশক ধরে টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছেন তিনি। বিভিন্ন জনপ্রিয় ধারাবাহিকে কখনো বৌদির চরিত্রে আবার কখনো বা মা কাকিমার চরিত্রে অভিনয় করে দর্শকদের নজর কেড়ে নিয়েছেন মৈত্রেয়ী। বেশ কিছু সিনেমাতেও দেখা গিয়েছে তাকে। তবে বর্তমানে তিনি যে সিরিয়ালের সেটে কাজ করছেন সেখানেই অসুস্থ অবস্থায় চরম অমানবিকতার মুখোমুখি হলেন মৈত্রেয়ী। স্বাভাবিকভাবেই হয়তো আপনাদের মনেও প্রশ্ন আসছে যে কি এমন ঘটেছে মৈত্রেয়ীর সাথে! আসুন জেনে নেওয়া যাক।

অভিনেত্রী জানিয়েছেন গত ১০ই অক্টোবর শুটিংয়ে গিয়ে চূড়ান্ত অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন তিনি। আসলে অভিনেত্রীর রয়েছে বাতের সমস্যা। আধ ঘন্টা পা ঝুলিয়ে বসে থাকার পরে এই কারণেই তাকে বিশেষ সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়। এরপর আর কিছুতেই সোজা হয়ে উঠে দাঁড়াতে পারছিলেন না তিনি। অভিনেত্রী মনে করেছিলেন সম্ভবত তার গেটে বাঁতের জন্যই এই সমস্যা হচ্ছে। মৈত্রেয়ী জানিয়েছেন,“অসহ্য পায়ে ব্যথার পরে রাতের দিকে আমার জ্বর আসে। কোন মতে ওষুধ খেয়েই সকাল দশটায় আবার শুটিং এর সেটে হাজির হয়ে যাই। তবে পায়ের প্রতিটা জয়েন্টে এত ব্যথা ছিল যে সকাল থেকে আর হাটার ক্ষমতা ছিল না। কাউকে আমি কিছুই জানতে দিইনি। জ্বর বাড়তে শুরু করলেও দাঁতের দাঁত চেপে বসে রইলাম”।

অভিনেত্রীর আরো সংযোজন, “শুটিং এর আগে ওরা আমাকে রেডি করাতে এসে দেখল যে আমার গা জ্বরে পুড়ে যাচ্ছে। এরপর এই ব্যাপারটা জানার পর প্রায় আড়াই ঘণ্টা তারা সময় নেন আমাকে ছাড়বেন কিনা সেটা জানানোর জন্য। অনেকেই মনে করেছিল সম্ভবত অন্য কোন কাজের যোগাযোগ হয়েছে তাই বেরিয়ে যেতে চাইছি। তাই অনেককেই বলতে ইচ্ছে করছে অভিনয়ে আমাদের পুজো। মিথ্যের আশ্রয় করে অভিনয় অনেকেই করেন কিন্তু তার সঙ্গে সবাইকে এক করে ফেলাটা কিন্তু একেবারেই উচিত নয়।

আজ হাসপাতালে ভর্তি হয়ে আমি অন্তত প্রমাণ করতে পারলাম যে সেদিন সত্যিই অসুস্থ ছিলাম”। দীর্ঘ দুই দশক ধরে ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করার পরেও একজন এরকম সিনিয়র অভিনেত্রীর সঙ্গে কেন এমন ব্যবহার করা হলো তা নিয়ে কিন্তু প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে। নিঃসন্দেহে অভিনেত্রী যে অত্যন্ত দুঃখ সহকারে এই কথাগুলি শেয়ার করেছেন তা হয়তো আর আপনাদেরকে আলাদা করে বলার প্রয়োজন নেই। নিজের প্রোফাইল থেকে সম্প্রতি একটি পোস্ট শেয়ার করে এই ঘটনাটা সকলের সঙ্গে শেয়ার করে নিয়েছিলেন অভিনেত্রী।

মৈয়েত্রী-র পোস্টে তাঁর দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন অভিনেতা ভাস্বর বন্দ্যোপাধ্যায়, মানসী সেনগুপ্তরা। পাশাপাশি অভিনেতা ও বাচিক শিল্পী সুজয় প্রসাদ চট্টোপাধ্যায় লেখেন- ‘এই ঘটনাটি ফোরামের জানা উচিৎ। মেডিক্যাল এমার্জেন্সির সময় কারুর তোমাকে হেনস্থা করবার অধিকার নেই। আর হ‍্যাঁ শোনো টাকা রোজগার করতে যাওয়া মানে নিজেদের বলিপ্রদত্ত করা নয় বা তাদের চৌহদ্দি তে বসে মোসাহেবী করা নয়।’

Back to top button