কোন ঝামেলা ছাড়াই বাড়িতেই এই পদ্ধতিতে বানান ঝরঝরে ও দারুন সুস্বাদু বাসন্তী পোলাও! রইলো রেসিপি।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- এই বৃষ্টির দিন ঘরে বসে যদি নিজের পছন্দের মতন কিছু খাবার বানিয়ে নেওয়া যায় তাহলে খারাপ হয় না ব্যাপারটা । তাই তো আজকে আপনাদের সামনে বলতে এসেছি যে কিভাবে বাসন্তী পোলাও তৈরি করতে পারবেন সহজে ।তার পাশাপাশি যদি মাংস কষা থাকে তাহলে তো আর কোন কথাই নেই । ইতিমধ্যে আমাদের অনেকেরই বাসন্তী পোলাও খেতে প্রচন্ড ভালো লাগে । কোন অনুষ্ঠান বাড়ি হোক বা বিয়ে বাড়ি বা কোন উৎসব হোক এই খাবারটি কিন্তু থেকেই থাকে ।

দীর্ঘ এই ল-কডা-উন এর ফলে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল সমস্ত রেস্তোরাঁগুলি । তার পাশাপাশি আমরা প্রত্যেকেই ছিলাম গৃহব-ন্দি । তাহলে কি ভালো মন্দ খেতে কিছু ইচ্ছে করেনা আমাদের । অবশ্যই করে এবং সেই কথা মাথায় রেখেই আজকের এই প্রতিবেদন । যার মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই জেনে যাবেন কিভাবে বাসন্তী পোলাও রান্না করতে হয়। বাসন্তী পোলাও রান্না করার জন্য যে সমস্ত উপকরণ গু-লি লাগবে সেগু-লি হল ৫০০-৬০০ গোবিন্দভোগ চাল, পরিমাণ মতো লবণ, চিনি ১০০ গ্রাম, হলুদগুঁড়া ২০ গ্রাম, তেল ১০০ মিলি, ঘি ১৫০ গ্রাম, কাজুবাদাম ১০০ গ্রাম, কিশমিশ ৫০ গ্রাম,

লবঙ্গ ৫টি জয়িত্রী ৭ থেকে ৮টি, তেজপাতা ৩টি, ছোট এলাচ ৫ থেকে ৬টি, ছোট দারচিনির টুকরা ৩টি, হাফ লিটার জল। এই উপকরণ দিয়ে ন্যূনতম ১০ জনের রান্না করা যেতে পারে । প্রতমে আপনি খুব ভালো করে ঠাণ্ডা জলে গোবিন্দভোগ চাল ধুয়ে নিন৷ এরপর ভেজা চাল শুকিয়ে নিন কিছুক্ষণ৷ শুকিয়ে যাওয়া চালে ঘি, হলুদ, আধ চাচামচ লবণ, গরম মশলার গুঁড়া ভালো করে মিশিয়ে নিন৷ এরপর একটি কড়াই গরম করে তাতে ১ টেবিল চামচ ঘি দিন৷

তাতে কাজু কিশমিশ দিয়ে নাড়তে থাকুন৷ একু সোনালি রং হলে তা নামিয়ে নিন৷ এরপর আবার কড়াইয়ে ঘি একটু গরম করে তাতে তেজপাতা এবং শুকনা গোটা গরম মশলা দিয়ে নাড়ুন৷ ভালো গন্ধ বের হলে চাল দিন৷ এবার বাদাম, কিশমিশ, চিনি দিয়ে আঁচ কমিয়ে পানি দিন৷ প্রায় ১৫ মিনিট পরে চেক করুন৷ দেখবেন হয়ে এসেছে৷ নামানোর পর দুই টেবিল চামচ ঘি ছড়িয়ে দিন এতে৷ তাহলেই তৈরি হয়ে যাবে বাসন্তী পোলাও যা আপনি পরিবেশন করতে পারেন রাত্রেবেলা বা দুপুর বেলা খাবারের সময় ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button