মাত্র পাঁচ মিনিটে পাহাড় সমান ভাত ও দুই কেজি মাং-স নিমেষে শে’ষ করে দিলেন যুবক-যুবতী, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- বাঙালি সব পারে এমনকি পাহাড় সমান ভাত খেয়ে নিতে পারে। কথাতে আছে” ভোজন রসিক বাঙালি “অর্থাৎ এই কথা থেকে আন্দাজ করা যেতেই পারে যে খাবার দাবার ব্যাপারে কোনো রকম আপোষ করতে ভালোবাসে না বাঙালিরা । ঠিক সেরকমই সোশ্যাল মিডিয়াতে এমন একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যা দেখলে আপনিও রীতিমত অ-বাক হ-বেন। সোশ্যাল মিডিয়া তে আমরা প্রতিদিন নিত্যনতুন ভিডিও দেখে থাকি ঠিকই কিন্তু সচরাচর এই ধরনের ভিডিও কেউ পোস্ট করেন না। কি এমন ভিডিও ? আসুন দেখে নেওয়া যাক ।

বেশ কিছুদিন আগে সোশ্যাল মিডিয়াতে একটি মেয়ে ভাইরাল হয়েছিল । আমাদের মধ্যে অনেকেই থাকেন যারা ইউটিউবে ফুড ব্লগ করতে ভালোবাসেন । অর্থাৎ বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে বিভিন্ন খাবার খেয়ে তার একটি ভিডিও শেয়ার করতে ভালোবাসেন। সে রকমই খুব সহজ অত্যন্ত সাধারণ পরিবারের একটি মেয়ে কিভাবে খাবার খেতে হয় তার ভিডিও প্রতিনিয়ত সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করত । এবং সেই মেয়েটি বেশ কিছুদিন ধরে খবরের শিরোনামে ছিল। যদিও তাকে প্রচন্ড ভাবে ট্রোল করা হতো । তবে এবার সেরকমই কিছু একটা ঘটলো এক দম্পতি সাথে।

সম্প্রতি একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে এক দম্পতি পাহাড় সমান ভাত নি-মিষে শেষ করে দিচ্ছেন । আজ্ঞে হ্যাঁ । ঠিক শুনেছেন পাহাড় সমান ভাত বিভিন্ন পদের সহকারে নি-মিষের মধ্যে শেষ করে দিচ্ছে ওই দম্পতি। যদিও প্রথমে দর্শক রা ভেবেছিলো যে এতটা ভাতা তারা খেতে পারবে না কিন্তু ভিডিও শেষে দেখা যাচ্ছে রীতিমতো তারা চেটেপুটে পরিষ্কার করে দিলো থালা ।

ওই স্বামী ও স্ত্রী উচ্ছে আলু মাখা , রুই মাছের মাথা দিয়ে মুসুর ডাল , রুই মাছের পাতলা ঝোল , দই কাতলা , পিঁয়াজের পকোড়া , চিকেন কষা থেকে শুরু করে নানা রকমের পদ দিয়ে এক পাহাড় সমান উঁচু ভাত নিয়ে খেতে বসেছেন আর তারা উচ্ছে ভাজা দিয়ে খাওয়া শুরু করে একে একে সব ধরণের পদ দিয়ে সম্পূর্ণ ভাত চেটেপুটে খেয়ে নিলেন। যা দেখে সকলে তাক লেগে গেছে। তবে এই ভিডিওতে এসেছে বেশ কিছু নে-তিবা-চক মন্তব্য । কারণ এমন অনেকেই আছে যারা ভালো মন্দ খেতে পায়না। তাদের সামনে এই ভিডিও তুলে ধরা উচিত নয় বলে মনে করেছেন অনেকে । ইতিমধ্যে ভিডিও দেখে ফেলেছেন অনেকে এসেছে অনেক নে-তিবা-চক এর পাশাপাশি ই-তিবা-চক ম’ন্তব্যও ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button