“আমার লক্ষ্মী পাশেই বসে! চোখ ফেরাতে পারি না!”, লক্ষ্মীপুজোতে নিজের স্ত্রী প্রমিতাকে নিয়ে মনের কথা ফাঁস রুদ্রজিতের

নিজস্ব প্রতিবেদন: সাত ভাই চম্পা ধারাবাহিকে অভিনয় করে সকলের মধ্যে জনপ্রিয়তা অর্জন করে নিয়েছিলেন অভিনেতা রুদ্রজিৎ মুখার্জি আর অভিনেত্রী প্রমিতা চক্রবর্তী। ধারাবাহিকের অভিনয় করতে করতেই তাদের দুজনের মধ্যে প্রেম সম্পর্ক তৈরি হয় এবং পরবর্তীতে তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। দর্শকদের অত্যন্ত পছন্দের জুটি হলো রুদ্রজিৎ আর প্রমিতা। যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এই দম্পতি কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়াতেও অত্যন্ত সক্রিয়।।

প্রায় সময় নিজেদের ছবি এবং ভিডিও নেট মাধ্যমে শেয়ার করে থাকেন তারা। সম্প্রতি তাদের এরকম ভাবেই একটি ভাইরাল সাক্ষাৎকার উঠে সামনে এসেছে। সম্প্রতি কয়েকদিন আগেই ছিল কোজাগরী লক্ষ্মীপুজো। সমস্ত নিয়ম মেনেই নিজেদের বাড়িতেও পুজোর আয়োজন করেছিলেন রুদ্রজিৎ আর প্রমিতা। তখনই সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন তারা এবং চলে দেদার আড্ডা। আসুন জেনে নেওয়া যাক এই তারকা দম্পতির কিছু কথা।

সাক্ষাৎকারের শুরুতেই দেখা যায় প্রমিতার সাজের প্রশংসায় মগ্ন হয়েছেন রুদ্রজিৎ। একেবারেই স্পষ্টভাষায় তিনি জানান, “ও যখন শাড়ি পড়ে হালকা গয়না দিয়ে সাজে আমি তখন ওর দিক থেকে চোখ ফেরাতেই পারি না। বিশেষ করে যখন ও নাকে নথ পড়ে তখন একটা অন্য রকমের ভালোলাগা থাকে। ও পুরোপুরি আমার লক্ষী মা”। এরপরেই জানা যায় একে অপরকে শাড়ির কুচি ধরা থেকে শুরু করে ধুতি পরাতে পর্যন্ত সাহায্য করেছেন এই তারকা দম্পতি।

তারপরেই বাড়ির সদস্যদের সঙ্গে চলতি বছরের পুজো কেমন কাটছে সেটা নিয়ে বিশেষ কিছু দিক শেয়ার করে নেন রুদ্রজিৎ। রুদ্রজিতের কথায়, “সমস্ত উপকরণ বাড়িতে আছে কিনা বা সবকিছু ঠিকঠাক ভাবে আনা হয়েছে কিনা সবকিছু নিয়েই আমি খুব চিন্তায় থাকি। তবে কথাতেই রয়েছে ভগবান যখন দেয় সবকিছু পূর্ণ করেই দেয়। আমি যথেষ্ট ভালো লক্ষীমন্ত বউ পেয়েছি। এখন আর আমাকে আগের মতন প্রেসার নিতে হয় না। আমার মা আর বউ আমাকে যথেষ্টই গাইড করে দেয়”।

এরপর বেশ মজার ছলেই রুদ্রজিৎ জানান,“ আমি যখন লক্ষ্মী পুজোর আগে লিস্ট হাতে পেয়েছিলাম তখন রীতিমতন অবাক হয়ে গিয়েছিলাম। দোকানে দোকানে ভিড়ের মধ্যে আমি ঘুরে বেরিয়েছি রীতিমত”। এরপর স্বামীর অবস্থা দেখে হাসতে হাসতে এই প্রমিতা বলেন, “ও ভেবেছিল হয়তো একটা দোকানে গেলেই সমস্ত বাজার কমপ্লিট হয়ে যাবে। কিন্তু লক্ষ্মী পূজোর বাজার মানেই সমস্ত দোকানের রীতি মতন ঘোরাফেরা করতে হয়।। তবে যাই হোক ও সব কাজই ভালোভাবে করতে পেরেছে”।

সেলিব্রিটি হলেও কিন্তু সাধারণভাবেই জীবন যাপন করতে ভালোবাসেন রুদ্রজিত প্রমিতা। যেভাবে একেবারে সাধারন মানুষের মতন দোকানে ঘুরে ঘুরে তিনি লক্ষ্মী পুজোর জন্য বাজার করেছেন সেটা দেখে রীতিমতন অবাক হয়ে গিয়েছেন নেটিজেনরা। তবে এই প্রথমবার নয় এর আগেও দুর্গা পুজোর সময় প্রমিতাকে নিয়ে গড়িয়াহাটের শাড়ির দোকানে রীতিমতন দরদাম করে বাজার করতে দেখা গিয়েছিল তাদেরকে। সেই সময়ও সংবাদমাধ্যমের ক্যামেরায় ধরা দিয়েছিলেন তারা।

সেলিব্রিটি মানেই আমাদের মধ্যে যে ধারণাটা সাধারণত তৈরি হয়ে থাকে যে খুবই উচ্চমানের জীবন যাপন বা অহংকারপূর্ণ কথাবার্তা; সেই ইমেজটা কিন্তু একেবারেই অনেকটা ভেঙে যায় রুদ্রজিৎ আর প্রমিতার কাছে। যদি প্রতিবেদনটি ভালো লেগে থাকে তাহলে আপনারা কিন্তু অবশ্যই এই সাক্ষাৎকার ভিডিওটি দেখে নিতে ভুলবেন না। এই তারকা দম্পতিকে আপনাদের কেমন লাগে তা আমাদের সঙ্গে কমেন্ট বক্সে শেয়ার করে নিতে পারেন।

Back to top button