খুব সহজে খাটনি ছাড়াই বাথরুমের টাইলস করে ফেলুন একদম ঝকঝকে নতুনের মত ,রইলো স্টেপ বাই স্টেপ পদ্ধতি

নিজস্ব প্রতিবেদন : বর্তমান সময়ে বাড়ির বাথরুমে কিন্তু অনেকেই কম বেশি টাইলস ব্যবহার করে থাকেন।। দীর্ঘ সময় ধরে এই টাইলস ব্যবহার করতে গিয়ে কিন্তু একদিকে যেমন সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায় ঠিক তেমনভাবেই বহু সমস্যা দেখা যায়। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আপনারা কিভাবে সহজে বাথরুমের টাইলস পরিষ্কার করে নিতে পারবেন সেই সম্বন্ধে আলোচনা করতে চলেছি। চলুন আর দেরি না করে আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক।

বাথরুমের টাইলস পরিষ্কার করার জন্য কি কি করবেন?

১) বাথরুমের টাইলস পরিষ্কার করার জন্য প্রথমেই এটিকে ভালো করে জল দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। এরপর একটি শুকনো কাপড় দিয়ে ভালো করে বাথরুমের টাইলস ঘষে মুছে নিতে হবে যাতে এতে এক ফোঁটা জল না থাকে। এভাবে মুছে নিলে কিন্তু পরিষ্কার করতে খুবই সুবিধা হবে।

২) বাথরুমের টাইলস পরিষ্কার করার জন্য আপনাকে অবশ্যই ভালো মানের কোন ক্লিনার ব্যবহার করতে হবে। এবারে এই ক্লিনার ভালো করে গোটা বাথরুমের টাইলস এ আপনাকে ছিটিয়ে নিয়ে ৩০ মিনিট সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। তবে খুব বেশি সময় কিন্তু ক্লিনার বাথরুমের উপর না রাখাই ভালো। এবার টাইলস পরিষ্কার করার জন্য আপনাকে নিয়ে নিতে হবে একটি শক্ত ব্রাশ।

৩) এবার সম্পূর্ণ ক্লিনার দিয়ে ভালো করে ব্রাশ দিয়ে বাথরুমের টাইলস ঘষে নিলেই দেখবেন এটি একেবারে নতুনের মতন চকচকে হয়ে উঠেছে। চলুন এরপরে বাথরুমের টাইলস পরিষ্কার করার আরো কয়েকটি প্রসেস জেনে নেওয়া যাক।

৪) বাথরুমের টাইলস পরিষ্কার করার জন্য একটি অন্যতম ভালো উপাদান হল ভিনিগার। সমপরিমান ভিনিগার ও জল মিশিয়ে আপনাদের প্রথমেই একটি মিশ্রণ তৈরি করে নিতে হবে। এবার মিশ্রণটি 10 থেকে 15 মিনিট সময় পর্যন্ত ভালোভাবে রেখে আপনাদের ঘষে ফেলতে হবে। মিনিট পনেরোর সময় পর ভালো করে জল দিয়ে ধুয়ে নিলেই দেখবেন বাথরুমের টাইলস আগের মতন ঝকঝকে তকতকে হয়ে উঠেছে।

৫) সবশেষে আমরা বাথরুমের টাইলস পরিষ্কার করার জন্য বেকিং পাউডারের কথা বলব। এর জন্য আপনারা একটি শুকনো কাপড়ের মধ্যে বেকিং পাউডার লাগিয়ে ভালো করে তা বাথরুমের টাইলস এ কিছুক্ষণ ঘষে নিয়ে জল দিয়ে ধুয়ে দিতে পারেন। অন্ততপক্ষে সপ্তাহে দুইদিন আপনারা এই কাজটি করতে পারলে কিন্তু আপনার রান্নাঘর কিংবা বাথরুমের টাইলস একেবারে নতুনের মতন চকচকে থাকবে এবং কোনরকম দাগ হবে না। আমাদের আজকের এই বিশেষ টিপস আপনাদের কেমন লাগলো তা জানাতে অবশ্যই ভুলবেন না। বিস্তারিত জানতে আমাদের পরবর্তী প্রতিবেদন গুলির উপর নজর রাখতে থাকুন।

Back to top button