আটপৌরে শাড়ি, পরনে সোনার অলংকার! বিয়ের ছবি নিয়ে শ্বশুরবাড়িতে ধ-র্নায় বসলেন যুবতী, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আচ্ছা একটা কথা বলি এই সমাজে নারী-পুরুষের যদি সমান অধিকার থেকেই থাকে তাহলে যত রকমের অ-ন্যায় অ-ত্যাচার না-রীদের উ-পর হ-বে কেন এবং কেন তারা সেই সমস্ত বিষয়গু-লিকে যুগের পর যুগ ধরে সহ্য করবে? প্র-তিবাদ করলে তার চরিত্রে ক-লঙ্কের দা-গ লে-গে যা-বে কেন? এই প্রশ্নের উত্তর হয়তো প্রতিটা মেয়ের মনের রয়েছে। কিন্তু উত্তর পাওয়া সম্ভব হয়নি কারণ আমরা আজও গোঁ-ড়া-মিতে বিশ্বাসী ।

একটা মেয়ে যে বাড়িতে ছোটবেলা থেকে বড় হয়ে ওঠে বিয়ে হওয়ার পর সেই বাড়িতে তাকে ছেড়ে দিয়ে চলে যেতে হয় । মা বাবা ভাই বোন দিদি দাদা সবাইকে ছেড়ে অন্য একটি বাড়িতে সম্পূর্ণ রকম ভাবে নিজেকে মানিয়ে নিতে হয় । তার জন্য সময় লাগে এবং লাগে মানসিকতা। তার পাশাপাশি নিজের পদবিও পাল্টে ফেলতে হয়। এই ধরনের নিয়ম হিন্দু শাস্ত্র রয়েছে এতদুর পর্যন্ত মানা যায় কিন্তু কখনো অন্যের বাড়ির মেয়েকে বিয়ে করে এনে মা-নসি-কভাবে অ-ত্যা-চার ক-রার কোন অধিকার কোন শ্বশুর বাড়ি থাকে না ।

কিন্তু সম্প্রতি এমনই একটি ঘটনা দেখা গেল এই সোশাল মাধ্যমে । এবং আপনি জানলে অ-বাক হ-বেন বর্তমানের এই উন্নত সভ্যতার দাঁড়িয়ে আমাদেরকে সোশ্যাল মাধ্যমে এই ধরণের ঘটনার সাক্ষী থাকতে হচ্ছে যা আমাদের কাছে অত্যন্ত ল-জ্জা-জনক । ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার ঘাটালের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের। দু বছর আগে বিয়ে করে এসেছিল তার বাড়িতে নতুন পুত্রবধূ । কিন্তু সামাজিক কু-সং-স্কার এবং ধর্মীয় গোঁ-ড়ামি বা অন্যান্য যে কোন কারণের জন্য সেই ছেলের মা অর্থাৎ শাশুড়ি সেই বউকে মেনে নিতে পারেনি ।

যার ফলে দুই বছর তাকে ঘরে প্র-বেশ ক-রতে দে-য়নি । সেই সূত্রে তাদেরকে থাকতে হয়েছে অন্যত্র জায়গায় । কিন্তু দুবছর কে-টে যাওয়ার পর যখন একই রকম ভাবে চলতে থাকে, পরিস্থিতির কোনো রকম কোনো পরিবর্তন হয় না তখন ওই গৃহবধূ সাহসিকতার সাথে বাড়ি শ্বশুর বাড়ির সামনে এসে ধরনায় বসে । ঘটনাটি প্রকাশ্যে চা-ঞ্চল্য ছ-ড়াল এলাকাজুড়ে এলাকার মানুষজন ভিড় করে তাকে দেখতে । তার পাশাপাশি গৃহবধূ দা-বি যে গত দু’বছর ধরে তিনি তার স্বামীর সাথে বাইরে রয়েছে কিন্তু কেন শ্বশুর বাড়িতে থাকতে পারবেন না । যদি এর কোন সমাধান এখনো পর্যন্ত হয়নি ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button