মেয়ের বিয়েতে দিলেন নগদ 1.5 কোটি টাকা পন! সঙ্গে আমন্ত্রিত 800 অতিথি! বরখাস্ত পুলিশ অফিসারের কান্ড দেখে হতবাক সকলে!

নিজস্ব প্রতিবেদন:বর্তমান সমাজে অনেকটা ব্যাধির মতো ছড়িয়ে পড়েছে পণপ্রথা। হাজারো চেষ্টা করার পরেও এটি বন্ধ করা যায়নি। অনেক জায়গাতেই বিয়ের সময় ছেলের পরিবার বা মেয়ের পরিবার সম্পূর্ণ নিজের ইচ্ছাতেই এই প্রথা চালিয়ে যান। সম্প্রতি এই পণ প্রথা নিয়ে একটি অদ্ভুত খবর সামনে এসেছে।জানা যাচ্ছে রাজস্থানের ভরতপুর জেলার অধীনে উচাইনে অনুষ্ঠিত একটি বিয়ে বাড়িতে মেয়ের বিয়ে উপলক্ষে নগদ 1 কোটি 15 লক্ষ 101 টাকা যৌতুক দিয়েছেন এক বরখাস্ত পুলিশ অফিসার।

এমনকি বিয়ে বাড়িতে আসা প্রতিটি বরযাত্রীকেও 511 টাকা করে নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে। জানা যাচ্ছে বিয়ে বাড়ির ওই অনুষ্ঠানে কংগ্রেস বিধায়ক যোগেন্দ্র সিং আওয়ানা, হিমাংশু আওয়ানা,প্রাক্তন বিধায়ক ঘনশ্যাম মেহের সহ একাধিক শীর্ষস্থানীয় কংগ্রেসী নেতারা উপস্থিত ছিলেন। সম্প্রতি নেট মাধ্যমে এই বিয়ের যৌতুকের টাকা ঘোষণার একটি ভিডিও ভাইরাল হতে দেখা গিয়েছে।

ভাইরাল সেই ভিডিওতে 500 টাকার নোটের বান্ডিল গু-লিও দেখা যাচ্ছে।প্রসঙ্গত গত 23 শে জানুয়ারি বরখাস্ত পুলিশ অফিসারের মেয়ের সঙ্গে করাউলির বাসিন্দার দীপকের বিয়ে হয়। পাত্র আবগারি দফতরের পরিদর্শক পদে নিযুক্ত রয়েছে। এমনকি এই বিয়ে বাড়িতে করোনা বিধি নিয়েও বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। একাধিক ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে বিয়ে বাড়িতে কোন রকম করোনা বিধি মানা হয়নি।

প্রায় 800 জনের বেশি মানুষ ওই বিয়েবাড়িতে এসেছিলেন। তাদের প্রায় কারুর মুখে মাস্ক দেখা যায়নি। জানিয়ে রাখি অভিযুক্ত ইন্সপেক্টর অর্জুন সিং কে 2020 সালে এক ব্যক্তিকে দু লক্ষ টাকা ঘুষ দিতে না যাওয়ায় পুলিশ স্টেশনে মারধর করার অভিযোগে বরখাস্ত করা হয়েছিল।তিনি 30 বছর ধরে উচাইন শহরের বাসিন্দা। একাধিক গাড়ি এবং সম্পত্তির পাশাপাশি দুটি বিলাসবহুল বাড়ি রয়েছে তার।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button