তাকে বিয়ে করার পরও শ্রাবন্তীর সাথে আরো দুজনের হয় ডিভোর্স! জানেন এখন কি করেন শ্রাবন্তীর সেই প্রথম স্বামী রাজীব?

নিজস্ব প্রতিবেদন: টলিউডের অন্যতম মিষ্টি নায়িকা হিসেবে পরিচিত শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। তবে নিজের অভিনয় জীবনের থেকে বেশি ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে চর্চায় থাকেন শ্রাবন্তী। পরপর তিনবার বিয়ে এবং বিচ্ছেদ সবকিছু নিয়েই সৃষ্টি হয়েছে তার জীবনে বিতর্ক। প্রসঙ্গত বর্তমানে তৃতীয় বিবাহ বিচ্ছেদের পরে আবারো চতুর্থ সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছেন নায়িকা

জানা যাচ্ছে এবারে একই আবাসনের বাসিন্দা বেকারির ব্যবসায়ী অভিরূপ নাগ চৌধুরীর প্রেমে পড়েছেন শ্রাবন্তী। তবে এতসব কিছুর মাঝেই অনেকের মনেই প্রশ্ন রয়েছে কোথায় রয়েছেন শ্রাবন্তির প্রথম স্বামী? পাঠকদের উদ্দেশ্যে শুরুতেই জানিয়ে রাখি ২০০৩ সালে প্রথমবার পরিচালক রাজীব কুমার বিশ্বাসকে বিয়ে করেছিলেন শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। মাত্র ১৬ বছর বয়সে বিয়ের পিঁড়িতে বসেছিলেন অভিনেত্রী।

২০০৩ সালে চ্যাম্পিয়ন ছবির শুটিং চলাকালীন তাদের প্রেম শুরু হয় এবং পরে তা বিয়েতে পরিণত হয়। তবে প্রায় ১৩ বছর একসঙ্গে সংসার করার পরে ২০১৬ সালে এই দম্পতির বিচ্ছেদ হয়। বিচ্ছেদের কারণ হিসেবে পরকীয়া সম্পর্কের কথা জানিয়েছিলেন শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। যদিও পরবর্তীতে দেখা যায় রাজীব নয় একাধিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন অভিনেত্রী নিজেই। কম বয়সে বিয়ে করলেও তা কিন্তু তার অভিনয়ের কেরিয়ারে কোনরকম প্রভাব ফেলে নি।

বরং অনেকেই মনে করেন রাজীবকে পাশে পাওয়ার কারণে ধীরে ধীরে ইন্ডাস্ট্রির প্রথম সারির অভিনেত্রীদের তালিকায় নাম লিখিয়ে ফেলেছেন শ্রাবন্তী।। পরপর তিনবার তার বিয়ে হলেও প্রথমবার রাজিব কুমার বিশ্বাসকে বিয়ে করার পরেই মা হয়েছিলেন তিনি। ২০১৬ সালে শ্রাবন্তীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর আচমকায় ইন্ডাস্ট্রি থেকে উধাও হয়ে গিয়েছিলেন রাজীব কুমার বিশ্বাস। পরপর বেশকিছু সুপারহিট সিনেমার পরিচালনা করলেও সম্প্রতি আবারো ছোটপর্দায় ফেরত আসতে চলেছেন তিনি।।

আর কিছু দিনের মধ্যেই রাজীব কুমার বিশ্বাস পরিচালিত “আলোর ঠিকানা” নামের ধারাবাহিক শুরু হতে চলেছে সান বাংলা চ্যানেলে। সম্প্রতি নিজের এই কামব্যাক নিয়ে মুখ খুলেছেন রাজিব। এক সাক্ষাৎকারে তাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল আচমকাই তার ছোট পর্দায় ফেরত আসার কারণ নিয়ে! এই প্রসঙ্গে রাজিব কুমার বিশ্বাস বলেন, সিনেমার আগে সিরিয়ালের পরিচালনাই করেছি। প্রথম হিট ছবি ‘দু’জনে’ এর আগে একাধিক সিরিয়ালের পরিচালনার কাজে যুক্তি ছিলেন তিনি।

তাছাড়া এখন দেব থেকে জিৎ এর মত তারকারাই পরিচালনা করছেন। একটু অন্য ধারার ছবি তৈরী হচ্ছে যেটা তার পক্ষে বানানো সম্ভব নয়। রাজীবের কথায়, “দেব,জিৎ দের সঙ্গে কথা হয়। কিন্তু এই মুহূর্তে ওরা অন্য রকম ছবি তৈরি করছে। বিশেষত দেব যেমন ছবি বানাচ্ছে, সেই ধরনের ছবি তৈরিতে আমি পারদর্শী নয় বলেই আমার ধারণা। তবে এখনও আমার মনে হয়, ইন্ডাস্ট্রিকে বাঁচাতে গেলে মশলাদার বাণিজ্যিক ছবি তৈরি করতে হবে। ফাইট মাস্টাররা কিংবা নাচের লোকজনদের বেশ ক্ষতি হচ্ছে”।

কাজের পরে তার ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও রাজীবকে প্রশ্ন করা হয়েছিল। শ্রাবন্তির সঙ্গে তার বিয়ে এবং বিচ্ছেদ নিয়ে যদিও কিছু বলতে চান নি পরিচালক। বরং বেশ সুন্দর করেই তিনি এই প্রশ্নটি এড়িয়ে গিয়েছেন বলা যায়। তবে এদিন যখন ছেলে ঝিনুক ওরফে অভিমন্যুর প্রেম সম্পর্ক নিয়ে রাজীবকে প্রশ্ন করা হয় তখন কিন্তু তার উত্তর দিয়েছেন তিনি। প্রসঙ্গত শ্রাবন্তী আর রাজিবের ছেলে ঝিনুককে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রায় সময় চর্চা হতে দেখা যায়।

এই প্রসঙ্গে বাবা হিসেবে রাজিব জানান, “হ্যাঁ, দেখেছি চর্চা হয়। ওদের ব্যক্তিগত বিষয় আমি কী বলি! তা ছাড়া প্রেমের বিষয় নিয়ে আমার সঙ্গে কথা বলার সাহসও নেই ঝিনুকের। ওর মা আছে, বুঝবে এই সব”। পরিচালকের এই কথা থেকে স্পষ্ট বোঝা যায় বিচ্ছেদের পর বহু বছর পেরিয়ে গেলেও আজও অনেক দিকেই কিন্তু শ্রাবন্তির উপরেই ভরসা করেন তিনি। যদিও বর্তমানে তাদের ব্যক্তিগত সম্পর্ক ঠিক কোন পর্যায়ে রয়েছে সেই নিয়ে কিছুই জানা যায়নি।

Back to top button