খুব কম ওজনের মধ্যে আধুনিক ডিজাইনের সোনার বালার ১২টি দুর্দান্ত কালেকশন দেখে নিন!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- সোনার গয়না নিয়ে কিন্তু প্রত্যেক মানুষের মধ্যেই এক প্রকার আলাদা আবেগ কাজ করে থাকে। এমন বহু মানুষ রয়েছেন যারা বিভিন্ন উৎসব অনুষ্ঠানে সোনার গয়নাই পড়তে পছন্দ করেন। তবে বর্তমান সময় কিন্তু এই সোনার গয়না ব্যবহার করা বেশ কঠিন হয়ে উঠেছে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এই হলুদ ধাতুর দাম এতটাই বৃদ্ধি পেয়ে গিয়েছে যে সাধারণ মানুষের পক্ষে আর প্রয়োজনে অপ্রয়োজনে সোনা কেনা সম্ভব হচ্ছে না। আজকাল বেশিরভাগ মানুষই কিন্তু বিকল্প ধাতুর খোজ চালাচ্ছেন।

তবে সামনেই রয়েছে দুর্গাপুজো ধনতেরাস আর দীপাবলির মতন উৎসব। স্বাভাবিকভাবেই এই সিজনে মানুষের মধ্যে কিন্তু সোনার তৈরি বিভিন্ন গয়না কেনার চাহিদা কমবেশি থেকেই থাকে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা তাই পূজো স্পেশাল কালেকশন হিসেবে আপনাদের সাথে শেয়ার করে নিতে চলেছে বিশেষ কয়েকটি সোনার বালার ডিজাইন।

পুজো স্পেশাল কিছু লেটেস্ট সোনার বালার ডিজাইন:

১) আজকের প্রতিবেদনের শুরুতেই আপনারা যে বালার ডিজাইনটি দেখতে পাচ্ছেন সেটা কিন্তু খুবই সুন্দর আর ইউনিক একটা ডিজাইন। কম-বেশি সকল মহিলাদেরই কিন্তু এই ডিজাইনটা ভালো লাগবে তা নিশ্চিত করে বলতে পারি। এটার দাম পড়বে প্রায় ৩২৮০০ টাকা।

২) হালকা ওজনের মধ্যে যারা বালা খুঁজছেন তারা অবশ্যই আমাদের প্রতিবেদনের এই দ্বিতীয় ডিজাইনটি ট্রাই করে দেখতে পারেন। খুবই ট্রাডিশনাল একটা ডিজাইন। সবার হাতেই কিন্তু দারুণ মানাবে। অনেকটা কল্কার মতন এতে নকশা করা রয়েছে। এটার মোটামুটি দাম পড়বে ৩৮ হাজার ৫০০ টাকা।

৩) এবারে আমরা যে ডিজাইনটি আপনাদেরকে দেখাচ্ছি, সেটা কিন্তু একটা রুলি বালার কালেকশন। এটাতেও ঠিক আগের ডিজাইনের মতোই অনেকটা কল্কার মতন নকশা করা রয়েছে। এই বালাটি তৈরি করতে গেলে আপনাদের খরচ পড়বে প্রায় ৪২ হাজার ৩০০ টাকা।

৪) এবার আপনারা যে বালার কালেকশনটি দেখেছেন সেটার মুখের অংশ কিন্তু খুবই সুন্দর ডিজাইন করা। এর উপরে যে ঝিলে কাটা কাজটি করা রয়েছে সেটাও যেকোনো মহিলাদের আকৃষ্ট করতে বাধ্য করবে। এটার দাম পড়বে ৪৩ হাজার ৪০০ টাকা।

৫) আমাদের এই প্রতিবেদনের ৫ নাম্বারেও যে বালাটি আপনারা দেখতে চলেছেন সেটাও একটা রুলি বালার কালেকশন। যারা একটু মুখ চওড়া বালা খুঁজছেন তারা অবশ্যই এই ডিজাইনটা কিন্তু ভালো করে দেখতে পারেন। এটি তৈরি করতে গেলে আপনাদের খরচ করতে হবে মোটামুটি ৪৩ হাজার ৭০০ টাকা।

৬) এবার যে ডিজাইনটি আপনারা দেখতে চলেছেন সেটা কিন্তু খুবই মিষ্টি একটা ডিজাইন। খুব সুন্দর একটা ট্র্যাডিশনাল ঝিলে কাটা ওয়ার্ক এর উপরে করা রয়েছে। এই ডিজাইনটি তৈরি করতে গেলে আপনাদের খরচ পড়বে প্রায় ৪২ হাজার ৭০০ টাকার কাছাকাছি।

৭) এবার যে কালেকশনটি আপনারা দেখতে চলেছেন সেটা অনেকটা মুখ খোলা বালার মতন। অনেকটা গোল প্যাচানো ধরনের একটা নকশা করা রয়েছে এই বালাটির উপরে। এটি তৈরি করতে গেলে আপনাদের খরচ পড়বে ৪৫ হাজার ৫০০ টাকার কাছাকাছি।

৮) এবার যে বালার কালেকশনটি আপনারা দেখতে পাচ্ছেন সেটার মুখের কাছে খুব সুন্দর বক্সের মতন ডিজাইন করা রয়েছে। পাশাপাশি খুবই গ্লসি একটা ডিজাইন যা সকল মহিলাদেরই কিন্তু পছন্দ হবে। নববধূদের হাতে এই ডিজাইন টা দারুন মানাবে। এটি তৈরি করতে আপনাদের খরচ পড়বে প্রায় ৪৬ হাজার ৫০০ টাকা।

৯) আবারো আপনাদের যে ডিজাইনটি দেখাচ্ছি সেটাও একটা মুখ খোলা বলার ডিজাইন। অনেকটা ঘটের মতন ডিজাইন এতে করা রয়েছে। ৪৭ হাজার ৮০০ টাকার মধ্যে আপনারা এই কালেকশনটি পেয়ে যাবেন।

১০) এবারে যে ডিজাইনটি আপনারা দেখতে চলেছেন সেটা কে এক কথায় অপূর্ব বলা যেতে পারে।খুব সুন্দর গোল বলের মতন উপরের অংশে এবং বাদবাকি অংশে একটা ঝিলেকাটা কাজ করা রয়েছে।

১১) এবার যে ডিজাইনটি আপনারা দেখছেন সেটাও একটা মুখখোলা বালা। খুবই গ্লসি একটা ডিজাইন এবং বালাটির উপরে এক ধরনের কলকার মতন কাজ করা রয়েছে যা অনেকটাই ইউনিক। ৫২৫০০ টাকা আপনাদের এই ডিজাইন টা তৈরি করতে গেলে খরচ পড়বে।

১২) আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনের সব শেষে ডিজাইনটি আপনাদের দেখাতে চলেছি সেটা তো একটা চৌকো ঘটের মতন এবং বাকি অংশতে খুব সুন্দর ঝিলে কাটা কাজ করা রয়েছে যা হয়তো এর আগেও আপনারা একটি কালেকশনে দেখেছিলেন। তবে এর নকশার ধরন সামান্য আলাদা। এটি তৈরি করতে গেলে আপনাদের খরচ করতে হবে ৫৩ হাজার ৬০০ টাকার কাছাকাছি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য আজকের এই বিশেষ কালেকশনগুলির মধ্যে কোন যদি আপনাদের পছন্দ হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই স্ক্রিনশট করে রাখবেন এবং নিকটবর্তী গহনার শোরুমে দেখাতে পারেন। তবে আজকের এই বিশেষ কালেকশন গুলি কলকাতার বউবাজারের বিপিনবিহারী গাঙ্গুলী স্ট্রিটে অবস্থিত গোল্ড এম্পোরিয়াম থেকে নেওয়া হয়েছে। চাইলে আপনারা কিন্তু এখানেও চলে যেতে পারেন। পাঠকদের সুবিধার্থে শোরুমের যোগাযোগ নাম্বার নিচে উল্লেখ করা হলো। গোল্ড এম্পরিয়াম এর যোগাযোগ নাম্বার – 9830289411

Back to top button