খুব কম ওজনের মধ্যে রেগুলার ইউজের সোনার শাঁখা পলা বাঁধানোর আধুনিক ডিজাইনের ১২টি দুর্দান্ত কালেকশন দেখে নিন

নিজস্ব প্রতিবেদন: আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি হালকা ডিজাইনের মধ্যে সোনার কিছু শাখা আর পলা বাঁধানোর ডিজাইন। যা কিছুটা হলেও মধ্যবিত্ত মানুষের সাধ্যের মধ্যে পড়বে। চলুন তাহলে আর দেরি না করে আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক। প্রসঙ্গত আজকের এই প্রতিবেদনে শাখা বা পলার যে দাম উল্লেখ করা হচ্ছে সেটা কিন্তু অনেকটাই হেরফের হতে পারে। যেহেতু দৈনন্দিন হিসেবে সোনার দর উত্থানপতন হতে থাকে তাই এই দামের পরিবর্তন হওয়াটাও খুবই স্বাভাবিক।

১) আজকের এই প্রতিবেদনের শুরুতেই আপনাদেরকে যে শাখা আর পলার ডিজাইন টা দেখাতে চলেছি সেটা কিন্তু দারুণ একটা কালেকশন। এই শাখাটিকে সাধারণত মুখ শাখা বলা হয়ে থাকে অর্থাৎ এর একটি অংশে মুখের কাছে দারুন কাজ করা রয়েছে। এই শাখাটির মোটামুটি দাম পড়ছে 44 হাজার টাকা। অন্যদিকে যে পলাটি রয়েছে সেটার উপরে খুব সুন্দর চওড়া করে নকশা অর্থাৎ কল করার মতন ডিজাইন করা রয়েছে।। এই পলাটির উপরে সোনার কাজ সহ দাম পড়বে ৮ হাজার টাকা।

২) এবার যে দ্বিতীয় শাখার ডিজাইন টা আপনাদের দেখাতে চলেছি সেটার শাখার মধ্যে মুখের কাছে খুব সুন্দর মিনা করা কাজ করা রয়েছে। এই শাখাটির দাম থাকছে ৩৮ হাজার টাকা।

৩) এরপর আপনারা যে শাখার কালেকশনটি দেখছেন সেটা কিন্তু সহজে রেগুলার ইউজের জন্য ব্যবহার করতে পারবেন। মোটামুটি ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকা খরচা করলে আপনারা এই ডিজাইনটা তৈরি করে নিতে পারবেন। খুব সুন্দর এদের টানা পাতের অল ওভার কাজ করা রয়েছে।পাতের উপরের অংশে রয়েছে লিফের মতন ডিজাইন করা কাজ।

৪) এবার যে শাখা বাধানো কালেকশনটি আপনারা দেখছেন সেটাতেও একেবারেই সরু পাতের মতন কাজ করা রয়েছে। এর উপরের অংশে রয়েছে একটি দাগ দাগ কাজ যা শাখাটিকে আরো আকর্ষণীয় করে তুলেছে। রেগুলার ইউজের জন্য এটা একেবারেই আদর্শ। মোটামুটি ২৭ হাজার টাকার মধ্যেই এই শাখাটা আপনারা তৈরি করে নিতে পারবেন।

৫) এবার যে শাখার ডিজাইনটি আপনাদের দেখাতে চলেছি সেটা কিন্তু খুবই ইউনিক একটা ডিজাইন। এই শাখাটির মধ্যে কোন এক ধরনের ডিজাইন নেই অর্থাৎ তার থেকে শুরু করে ফুল, গোল বলের মতন এবং হার্ট সেপের ডিজাইন রয়েছে। এই শাঁখা জোড়ার দাম পড়বে ৩৬ হাজার টাকা।

৬) এবার আপনাদের একটি চওড়া শাখা দেখাতে চলেছি যা যে কোন ব্রাইডাল কালেকশন হিসেবে কিন্তু আপনারা পড়তে পারবেন। এই শাখাটির মধ্যে খুব সুন্দর ভাবে butterfly মিনা করা রয়েছে। অনেকটা রেনবোর মতন করে এই মিনার কাজ করা হয়েছে। এই শাখাটির সব মিলিয়ে দাম পড়বে মোটামুটি ৬৮ হাজার টাকা।

৭) আমাদের এই প্রতিবেদনের ৭ নম্বরে যে ডিজাইনটি আপনারা দেখতে চলেছেন সেটাও কিন্তু একটা অত্যন্ত আকর্ষণীয় আর অসাধারণ শাখার ডিজাইন। এটাতে একটি হাতির মুখের ডিজাইন করা রয়েছে এবং সম্পূর্ণ শাখাটিতেই তারের জালির মতন করে কাজ করা রয়েছে। মোটামুটি ৩৭ হাজার ৫০০ টাকার মধ্যে আপনারা এই কালেকশনটা তৈরি করে নিতে পারবেন।।

৮) এবার আমরা চলে যাব পলার কালেকশনে। প্রথমেই যে পলাটি আপনারা দেখতে পাচ্ছেন সেটা কিন্তু একটি হাই পলিশ করা পলা। এটির দাম পড়বে মোটামুটি ৩৬ হাজার টাকা।

৯) এরপর আপনাদের যে পলাটি দেখাতে চলেছি সেটা ব্রাউন কালারের উপর কাজ করা রয়েছে। পাতা এবং খুব সুন্দর নকশার মতন করে এই পলাটিতে কাজ করা রয়েছে। এটির দাম পড়বে মোটামুটি ৩১ হাজার টাকা বা তার সামান্য বেশি।

১০) এবার আপনাদের দেখাতে চলেছি একটি ব্রাউন কালারের মুখ পলা।যারা মুখপলা পড়তে ভালোবাসেন তারা অবশ্যই এটা ট্রাই করে দেখতে পারেন। খুব সুন্দর একটা আলাদা ধরনের নকশা এতে করা রয়েছে। এটির দাম পড়বে মোটামুটি ২৮ হাজার ৫০০ টাকা।

১১) রেগুলার ইউজের জন্যও কিন্তু আপনারা চাইলে সোনার পলা নিয়ে নিতে পারেন। সরু পলার উপরে এটাতে একেবারে অল ওভার পাতের কাজ করা রয়েছে। দারুন এই কালেকশনটি নিঃসন্দেহে মা-বোনেদের পছন্দ হবে। এর দাম পড়বে মোটামুটি ২৯ হাজার টাকা।

১২) এই প্রতিবেদনের সব শেষে যে পড়াটি আপনাদের দেখাতে চলেছি সেটা কিন্তু একটি ব্রেসলেট পলা। চওড়া থেকে শুরু হয়ে এটা ধীরে ধীরে নিচের অংশে সরু হয়ে গিয়েছে। অসাধারণ সুন্দর একটা কাজ বসানো ডিজাইন এটা। এই পলা ব্রেসলেটটার দাম পড়বে মোটামুটি ৫২ হাজার ৫০০ টাকা।

Back to top button