ফের বড়পর্দায় ফিরছেন অভিনেত্রী সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়! জানেন কোন বাংলা সিনেমায় শীঘ্রই দেখা যাবে তাকে?

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাঙালি অথচ কাদম্বরী নামটা শোনেননি এমন কিন্তু হতেই পারে না। জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ির একজন উপেক্ষিতা নারী হিসেবেই কিন্তু তার পরিচিতি। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বৌঠান তিনি। তবে এই সবকিছুর উপরে যেটা সবথেকে বেশি উল্লিখিত সেটা হল রবীন্দ্রনাথ-কাদম্বরীর চোরা প্রেমের রসালো গল্প। বাঙালি কিন্তু আজও এই প্রেম কাহিনীর রীতিমত তাড়িয়ে তাড়িয়ে উপভোগ করে থাকে।

যদিও খুব বেশিদিন পর্যন্ত এই ঘটনা স্থায়ী ছিল না।একাকীত্ব, চাপা অভিমান, না-পাওয়ার ঘূর্ণাবর্তে ক্রমশ তলিয়ে গিয়ে শেষ পর্যন্ত অফিন খেয়ে আত্মহত্যা করেছিলেন কাদম্বরী। যদিও তৎকালীন সময়ে সেই কথা জানাজানি হতে দেননি শ্বশুরমশাই তথা কবিগুরু রবীন্দ্রনাথের পিতা দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর। সাংবাদিকদের ৬০ টাকা ঘুষ দিয়ে সমস্ত কথা ঠাকুরবাড়ির অন্দরেই তিনি বন্ধ করে দিয়েছিলেন।

তবে এবার সেই উপেক্ষিতা নারীকেই কেন্দ্র করে পর্দায় আসতে চলেছে ছবি। ঠাকুরবাড়ির সেই উপেক্ষিতা নারীর জীবন-কষ্টকে উপজীব্য করে পরিচালক শর্মিষ্ঠা দেব বানিয়েছেন নতুন ছবি “কাদম্বরী আজও”। তবে এই ছবিতে যে কাদম্বরী কে দেখা যাবে তিনি কিন্তু এই যুগের। কিন্তু ঠিক কি মিল রয়েছে দুজনের মধ্যে যা একাত্ম করে দিয়েছে কবিগুরুর বৌঠান আর এই যুগের কাদম্বরী কে?

এই প্রসঙ্গে পরিচালক শর্মিষ্ঠা দেব বলেন, “খুব সোজাসাপ্টা সম্পর্ক নেই, তবে সেই কাদম্বরীর একাকীত্ব,বিরহ,চাপাকষ্ট আজকের একবিংশ শতাব্দীর সাবলম্বী কাদম্বরীদের মধ‌্যেও যে তারই ছায়া,এই ছবি তারই কথা বলে”। প্রসঙ্গত এই ছবির মাধ্যমেই দীর্ঘ সময় পর বড় পর্দায় কামব্যাক করতে চলেছেন এককালীন জনপ্রিয় অভিনেত্রী সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়। এই ছবিতে কাদম্বরীর ভূমিকায় দেখা যাবে অঙ্কিতাকে। তার ঠাকুমার চরিত্রে রয়েছেন সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়।

যদিও সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়ের চরিত্রটি নিয়ে সবিশেষ মুখ খুলতে চাননি পরিচালক। শর্মিষ্ঠা দেব সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়ের চরিত্রকে কিন্তু রীতিমত বড় চমক বলে উল্লেখ করেছেন। উল্লেখ্য ছবিটি ইতিমধ্যেই ইন্দো-ফ্রাঁন্স এবং রিলস আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে সেরা পরিচালকের পুরস্কারের সম্মানিত হয়েছে। এই গোটা ছবিটির শুটিং হয়েছে কলকাতা এবং উত্তরবঙ্গর রিশপ, লোঁলেগাও এ।

অঙ্কিতা এবং সাবিত্রী ছাড়াও এই ছবিতে অন্যান্য ভূমিকায় অভিনয় করেছেন রাজদীপ সরকার, বিশ্বজিত চক্রবর্তী, রুমকি চট্টোপাধ্যায় প্রমূখ ব্যক্তিবর্গরা। জানা যাচ্ছে গতকাল ২৩ শে সেপ্টেম্বর পশ্চিমবঙ্গ, আসাম এবং ত্রিপুরায় একসঙ্গে মুক্তি পেয়েছে। প্রতিবেদনটি ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই হলে গিয়ে এই ছবিটি দেখে নিতে ভুলবেন না। এখনো পর্যন্ত যা জানা যাচ্ছে তাতে এই ছবির গল্প কিন্তু একটা নতুন ধারা নিয়ে আসছে।

Back to top button