“অভিনয় নাকি হিরো হিরোইন! কোনটা চান!”, অভিনয়ে আগ্রহীদের মূল্যবান উপদেশ দিলেন বিশ্বজিৎ ঘোষ

নিজস্ব প্রতিবেদন: জি বাংলার একটি জনপ্রিয় ধারাবাহিক খেলনা বাড়ি। এই ধারাবাহিকের মুখ্যভূমিকায় দেখা গিয়েছে জনপ্রিয় অভিনেতা বিশ্বজিৎ ঘোষকে। পর্দায় শুরুর দিকে বেশ জনপ্রিয় হয়েছিল এই ধারাবাহিকটি। এই ধারাবাহিক এর মাধ্যমেই বহু সময় পর আবারো মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করলেন বিশ্বজিৎ। দীর্ঘ সময় ধরেই কিন্তু ইন্ডাস্ট্রির সাথে যুক্ত রয়েছেন তিনি। বহু চরিত্রে তার সহজ আর সাবলীল অভিনয় দর্শকদের মন কেড়ে নিয়েছে খুব সহজেই। সোশ্যাল মিডিয়ায় খুব একটা সক্রিয় না হলেও মাঝে মাঝেই তার সাক্ষাৎকার নেট মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে ওঠে।

ঠিক যেমন দিন কয়েক আগেই একটি সাক্ষাৎকারে অভিনয়ে আগ্রহীদের অনেক কিছু উপদেশ দিয়েছেন এই অভিনেতা। আসুন জেনে নেওয়া যাক অভিনেতা বিশ্বজিৎ ঘোষের কিছু ব্যক্তিগত দিক সম্পর্কে। সাক্ষাৎকারের শুরুতেই বিশ্বজিৎকে যখন প্রশ্ন করা হয় অন্যান্য তারকাদের মতন তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় ততটা সক্রিয় নয় কেন? তিনি উত্তরে জানান আসলে,“ তিনি মনে করেন ভালো কোন জিনিসের প্রচার প্রয়োজন হয় না। পরে তিনি জানান আগে যখন কিছুটা সময় ছিল তখন হয়তো ফেসবুকটা করা হতো তবে কাজের চাপে এখন আর হয়ে ওঠেনা।

অনেকেই নানান ধরনের মতামত শেয়ার করে থাকেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। এবার কেউ আমার কাজ নিয়ে বা অন্যান্য কোন বিষয় নিয়ে কিছু ভুল কমেন্ট করবে সেটা থেকে ভালো যে আমি দূরে থাকি সোশ্যাল মিডিয়া থেকে”। এরপর সাংবাদিক তার উদ্দেশ্য জিজ্ঞেস করেন যারা অভিনয় আসতে চান তাদের উদ্দেশ্যে অভিনেতা কোন পরামর্শ দেবেন কিনা? এর পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্বজিতের উত্তর, “একটা জিনিস আমাকে প্রত্যেকটা মুহূর্তে ভাবায়, ধরুন আপনার অভিনয় করতে ইচ্ছে করছে, এটা এমন নয় তো, যে খুব নাম হচ্ছে বা খুব সুন্দর ফটো আসছে তাই!

এই ব্যাপারটা কিন্তু অনেকেই ঠিক বুঝতে পারেন না। আমার মনে হয় অভিনয়ে আসার আগে এই সমস্ত জাজমেন্ট নিজে থেকেই কিন্তু করা দরকার। অনেকে আছেন যারা মডেলিং করতে করতে অভিনয় চলে আসেন বা অভিনয় করতে করতে মডেলিং এ চলে যান; তাই আগে বলবো আগে অভিনয়টাকে দেখুন জানুন এবং শিখুন তারপর কোন একটা সিদ্ধান্ত নিন। দেখুন আমি যখন কিছু না শিখে শুধুমাত্র ইচ্ছে নিয়ে এখানে চলে এসেছিলাম, সেই ইচ্ছেটাই কিন্তু আমাকে বাঁচিয়ে রেখেছে”।

অভিনেতা আরো জানান,“আমি কখনো অভিনয় শিখিনি বা কোন থিয়েটার করিনি। এখন কিন্তু খুব এমন অনেক কম মানুষ রয়েছেন যারা হয়তো মাথা ঠান্ডা করে শেখান। আমি যথেষ্ট চেষ্টা করি কোন মানুষ আমার কাছে অভিনয় সম্পর্কে কিছু জানতে চাইলে তাকে সেই বিষয়ে গাইড করে দেওয়ার। সকালে ঘুম থেকে উঠে যদি আপনার মনে হয় অভিনয়টাই আপনার কাছে সব তাহলে আপনি অবশ্যই এগোতে পারেন। আমিও জানতাম না আমি হিরো হয়ে যাব। আমাকে তারা ডেকেছেন, আমার কাজ দেখেছেন তারপরেই আমাকে সেই জায়গাটা দেওয়া হয়েছে”।

Back to top button