জেনে নিন ছোট বাচ্চাদের জন্যে দারুন সুস্বাদু ও পুষ্টিকর এই 7 টি খাবারের রেসিপি।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- যখন বাড়িতে কোন নতুন সদস্য আছে অর্থাৎ কোন বাচ্চা জন্মগ্রহণ করেন তখন কিন্তু অভিভাবকদের মনের এমনটা প্রশ্ন বারবার আসে ঠিক কি ধরনের খাবার তাকে খাওয়ানো যেতে পারে। যদি কোনো কারণে শক্ত খাবার পেটের মধ্যে চলে যায় তাহলে পেট খারাপ হতে পারে। এমনকি গলায় খাবার আটকে যাওয়ার মতো ঘটনা লক্ষ্য করা গেছে বহুবার। তাই সহজে হজম হয়ে যায় অথচ খেতে খুব একটা বেশি কষ্ট করতে হয় না এরকম ধরনের খাবার খাওয়ানো শ্রেয় বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। এ কি কি রয়েছে এই নরম খাবারের তালিকায় জেনে নিন এক নজরে।

গমের ডালিয়া ও ছোট এলাচের মিশ্রণে তৈরি খাদ্য:- এই মিশ্রণটি তৈরি করার জন্য অতি অবশ্যই আপনাকে 2 থেকে 3 টেবিল চামচ ডালিয়া নিতে হবে ।এলাচ নিতে হবে এবং তার পাশাপাশি নিতে হবে সবুজ কলাই এরপরে তিনটি উপকরণকে বেশ ভাল করে ভেজে নিতে হবে। তারপর আলাদা আলাদাভাবে ব্লেন্ডারে হোক বা অন্য কোন মাধ্যমে ভালো করে গুরো করে নিতে হবে ।তারপর তিনটি মিশ্রণকে ভালো করে মিশিয়ে জ্বাল দিয়ে অন্তত 10 থেকে 12 মিনিট ধরে ভালো করে ফুটিয়ে অন্য একটি পাত্রে তুলে রাখুন ।তারপর সেই খাবার পরিবেশন করুন শিশুর কাছে।

২)চালের ও মুগ ডালের মিশ্রণ:- এর জন্য প্রয়োজন হবে কিছু পরিমাণ চাল এবং কিছুটা পরিমাণ ডাল ।প্রথমে চাল গুলিকে ভালো করে গুঁড়ো করে নিন ।অপরদিকে ডালগুলি কে ভাল করে ভেজে গুঁড়ো করে নিন ।তারপর দুইটি মিশ্রণকে মিশিয়ে গরম জলের মধ্যে ফুটিয়ে নিন কিছুক্ষণ ধরে। সেদ্ধ হয়ে গেলে সে খাবার পরিবেশন করুন শিশুর কাছে।

৩)মধু ও ওটস এর মিশ্রন :- প্রথমে একটি পাত্রে কিছুটা পরিমাণ দুধ গরম করুন দুধ যখন গরম হয়ে যাবে তখন তার মধ্যে দিয়ে দিন কিছুটা পরিমাণ ওটস এর পর সেটি যখন রান্না হয়ে যাবে তখন নামিয়ে নিন অন্য একটি পাত্রে তারপর তার মধ্যে যোগ করে দিন মধু। এই নরম খাবার পরিবেশন করুন শিশুর কাছে।

৪)ভুট্টার মিশ্রণ:- এটি তৈরি করতে গেলে ভুট্টার পাউডার তিল পাউডার এবং মুগ ডালের পাউডার এর প্রয়োজন হবে তিনটি উপকরণকে আলাদা আলাদাভাবে ভাল করে ভেজে নিয়ে একসাথে মিশিয়ে দিন। তারপর সেটাকে গরম জলের মধ্যে ভালো করে ফুটিয়ে নিন বেশ কিছুক্ষণ ধরে।

৫)সোয়াবিন এবং গমের মিশ্রণ:- প্রথমে কিছুটা পরিমাণ সয়াবিন এবং গম কে ভালো করে গুঁড়ো করে নিন। তারপর 2 টি উপকরণ মিশিয়ে গরম জলের মধ্যে ভালো করে ফুটিয়ে নাড়তে থাকুন কিছুক্ষণ ধরে এবং সেই খাবার পরিবেশন করুন শিশুর কাছে।

৬)আপেল ও রাগী আটার মিশ্রন:- প্রথমে আপেলগুলো কি ছোট ছোট অংশ কেটে রেখে একদম ভালো করে গলিয়ে নিন। তারপর জলের মধ্যে রাগী আটার মিশিয়ে রান্না করুন ।এরপর আর মিশ্রণ এবং আপেল এর মিশ্রণকে একসাথে মিশিয়ে পরিবেশন করুন শিশুর কাছে।

৭)চিনা বাদাম এবং গমের মিশ্রণ:- চিনা বাদাম এবং সবুজ গম কে ভাল করে ভেজে নিন। তারপর আলাদা আলাদাভাবে সেগুলিকে গুঁড়ো করে নিন এবং পুনরায় সেগুলিকে মিশিয়ে দিন তারপর তার মধ্যে যোগ করে দিন তিন থেকে চার চামচ গরম জল। ভালো করে বেশ কিছুক্ষণ ধরে নাড়িয়ে নেওয়ার পর সে মিশ্রণ পরিবেশন করুন শিশুর কাছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button