২৭ তলার বিলাসবহুল রাজপ্রাসাদ, রয়েছে ৬০০ কাজের লোক, দেখুন মুকেশ আম্বানির বাড়ির ভিতরের দৃশ্য!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- বেশ কিছুদিন আগে প্রকাশিত হওয়া একটি সমীক্ষা থেকে জানা গিয়েছিল যে বিশ্বের সবথেকে ধনী ব্যক্তিদের মধ্যে নাম জড়িয়েছে মুকেশ আম্বানি । কে এই মুকেশ আম্বানি এ কথা নতুন করে বলার অপেক্ষা রাখে না । তিনি হলেন রিলায়েন্স জিওর কর্ণধার ।এবং রিলায়েন্স জিও গোটা ভারতবর্ষে যেভাবে আধিপত্য বিস্তার করেছে তাতে তার এই ধরনের আর্থিক অবস্থা দেখা যাবে এমনটা হবে স্বাভাবিক । কিন্তু কোথাও যেন মুকেশ আম্বানি বারবার নজর কাড়ে তার বাড়ির জন্য । কারণ বাকিংহাম প্যালেসের পর তার বাড়ি রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে পৃথিবীর সবথেকে দামি এবং বিলাসবহুল বাড়ি তালিকা ।

মুকেশ আম্বানির মুম্বাইয়ের যে বাড়িটি রয়েছে সে বাড়ির । এবং ২৭ তলা এই বাড়িটি ৫৭০ ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট হলেও বাইরে থেকে দেখতে লাগবে অবিকল ৪০ তলা বাড়ির মতন . একদম ঠিক শুনেছেন কি নেই এখানে। এই বাড়িতে রয়েছে সুইমিংপুল পার্কিং প্লেস মন্দির খেলার মাঠ থেকে শুরু করে যাবতীয় সমস্ত কিছু যা যা আমাদের নিত্য প্রয়োজনীয় দিনের প্রয়োজন পড়ে সমস্ত কিছু রয়েছে এই বাড়ির অন্দরমহলে । তার পাশাপাশি অতিথিদের জন্য রয়েছে একটি আলাদা ফ্লোরে । সেই ফ্লোরে শুধুমাত্র অতিথিরা এলে তাদেরকে থাকতে দেওয়া ।

এর পাশাপাশি রয়েছে একটি পার্কিং প্লেস যেখানে একসাথে ১৬৮ টি গাড়ি পার্কিং করা যাবে । এমনকি আপনি জানলে অবাক হবেন যে পার্সোনালিটি থিয়েটার রুম রয়েছে । এই বাড়ির অন্দরমহলে যেখানে ৫০ জন একসাথে বসে সিনেমা দেখতে পারবেন । ভিতরে রয়েছে সুইমিংপুল এবং ছাদের মধ্যে রয়েছে তিনটি হেলিপ্যাড । এইটা হল বাড়ির অন্দরমহলের কথা । কিন্তু এরপর আপনি জানলে অবাক হবেন যে বাড়িতে লোক সংখ্যা কথা শুনলে ।

এই বাড়িতে লোক সংখ্যা মাত্র পাঁচজন। একদমই ঠিক শুনেছেন মুকেশ আম্বানি, নিতা আম্বানি, পুত্র আকাশ আম্বানি, পুত্রবধূ শ্লোক আম্বানি, এবং সদ্যজাত সন্তান পৃথিবী আম্বানি এই ৫ জন মানুষকে দেখার জন্য কর্মচারীর সংখ্যা হচ্ছে ৬০০ জন । একদমই ঠিক শুনেছেন ৬০০ জন কর্মচারী দেখাশোনা করে শুধুমাত্র পাঁচজন মানুষকে । মুম্বাইয়ের কোন জায়গায় যাতে কোনো কারণে গরমের অনুভূতি না হয় তার জন্য রয়েছে একটি বিশেষ সুবিধা । বাড়িতে পুজো করার জন্য রয়েছে বড় একটি মন্দির । অর্থাৎ আপনি নিজেই ভাবুন যে এই বাড়িটি ঠিক কতটা বিলাসবহুল হতে পারে ভেতর থেকে ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button