ইনস্টাগ্রামে লাইভে আসলেন নুসরত! তার গ’র্ভের সন্তানের বাবা কে নিজেই সব সত্যি কথা নিজেই জানিয়ে দিলেন, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- এবার প্রকাশ্যে লাইভে এসে নিজের সন্তানের বাবার কথা বললেন নুসরাত জাহান । যে নুসরাত জাহান কে নিয়ে প্রতিনিয়ত খবরের শিরোনাম রয়েছে সে নুসরাত জাহান প্রকাশ্যে এসে বললেন তার সবটা সত্যি । কারণ বি-ত-র্কের অপর নাম নুসরাত জাহান এই মুহূর্তে। ২০১৯ সালে তুরস্ক থেকে ব্যবসায়ী নিখিল জৈন কে বিয়ে করেন অভিনেত্রী । তার পর থেকে তাদের সময় ভালো চললেও ঘটনার সূত্রপাত ঘটে এস এস কলকাতা নামক একটি সিনেমার অভিনয়ের মাধ্যমে ।

বাংলার অভিনয় জগতে তাঁর অবদান অনেকখানি থাকলেও ব্যক্তিগত জীবনে স-মস্যা যখন সবার সামনে উঠে এসেছে তখন রীতিমতো তাকে ক-টূক্তি-র শি-কার হতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত । বাংলার অভিনয় জগতের পাশাপাশি তিনি রাজনীতি জগতেও জনপ্রিয়তা লাভ করেছে অনেকখানি । প্র-তিবা-দী কণ্ঠ হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন এই বাংলার মানুষের কাছ থেকে । কিন্তু তার সাথে ঘটে যাওয়া ঘটনাগুলি কিছুতেই মেনে নিতে পারছে না তার অনুরাগীরা । এই মুহূর্তে নুসরাত জাহান কে নিয়ে জল্পনা শেষ নেই ।

কারণ তার অন্তঃসত্বা হবার ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই প্রশ্ন আসতে শুরু করে এই সন্তানের বাবা কে,। সে অর্থে নিখিল জৈন নুসরাতের স্বামী জানিয়েছেন তিনি এই সন্তানের বাবা নন । কারণ দীর্ঘ ছয় মাস তারা একসাথে থাকে না । তার পাশাপাশি যার দিকে আগুল উঠছিল অর্থাৎ যশ দাশগুপ্ত সেই যশ দাশগুপ্ত জানিয়েছেন যে এই সন্তানের বাবা তিনি নন । যার ফলে অবৈধ সন্তানের জন্ম দিতে চলেছেন নুসরাত জাহান । তার পাশাপাশি গোটা টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে এই প্রথম তিনি সিঙ্গেল মাদার হিসেবে পরিচিতি পেতে চলেছেন ।

কিন্তু এবার প্রকাশ্যে এসে তিনি নিজের সব ঘটনা তুলে ধরলেন। যে প্রশ্নের উত্তর পেতে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা রত তার অনুরাগীরা এবার সেই প্রশ্ন উত্তর দিতে লাইভ এলেন নুসরাত জাহান । তবে খোলসা করে তিনি কিছু বলেননি । কিন্তু তার এবং যশ দাশগুপ্ত যে সম্পর্ক সেটিকে গভীরভাবে প্রতিষ্ঠা করেছেন তিনি সেই লাইভের এর মাধ্যমে ।তার পাশাপাশি অনুরাগীরা এমনটা মনে করছেন যে যশ তাদের সম্পর্ক অস্বীকার করুক না কেন এই সন্তানের বাবা হচ্ছেন তিনি । কিন্তু অভিনেত্রী তরফ থেকে কিন্তু কোনো রকমে পরিষ্কার কোন বক্তব্য শোনা যায়নি । যার ফলে পুনরায় জল্পনা নতুন মাত্রা নিয়েছে ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button