“অঙ্কুশ তুই কালো বাঁদর হয়ে গেছিস”,- লাইভে এসে অঙ্কুশকে নিয়ে ঠাট্টা তামাশায় মা-ত’ল শুভশ্রী, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- একই শহর থেকে উঠে এসেছে এই দুই তারকা এবং তাদের আগে থেকে বন্ধুত্বপূর্ণ আচরণ ছিল বলে জানা যায় তাই অভিনয় জগতে আসার পরও বিন্দুমাত্র কমেনি তার প্র-ভাব । এখনো নানান ধরনের খুনসুটি মজার ভিডিও বা আরো অন্যান্য ঘটনা ঘটতে থাকে তাদের সাথে । যেগু-লি তারা প্রতিনিয়ত তার অনুরাগীদের সাথে ভাগ করে নেয় । কখনো হাসি কখনো দুঃ-খ কখনো রা-গ অ-ভিমান ঘটনা প্রতিনিয়তই চলতে থাকে তাদের মধ্যে । কারন তারা একে অপরের ভালো বন্ধু ।বলুনতো কার কথা বলতে চলেছি?

একদমই ঠিক ধরেছেন বর্ধমান শহর থেকে উঠে আসা শুভশ্রী গাঙ্গুলী এবং বর্ধমান শহর থেকে উঠে আসা অঙ্কুশ হাজরা কথা বলছি। অভিনয় জগতে অঙ্কুশ হাজরা এবং শুভশ্রী গাঙ্গুলীর কি অবদান সেটা নতুন করে বলার অপেক্ষা রাখে না ।একজন চ্যালেঞ্জ সিনেমা এবং অন্যজন কেল্লাফতে সিনেমার মাধ্যমে অভিনয় জগতে পদার্পণ করেন । তারপর দীর্ঘ সময় ধরে অভিনয় জগতে থাকার পর নিপুণভাবে দক্ষতার সাথে অভিনয় কে আনতে পেরেছে তারা । তাই প্রতিনিয়ত তাদের অভিনয় দেখে ম-ন্ত্রমুগ্ধ হয় এই বাংলার মানুষরা ।

সম্পত্তির নাচেরে রিয়েলিটি-শো ডান্স বাংলা ডান্স শুরু হয়েছে এবং এখানে বিচারকের আসন লেখা যাবে শুভশ্রী গাঙ্গুলী গোবিন্দা জিৎ এবং অঙ্কুশ হাজরা কে ।যদি অঙ্কুশ হাজরা এখানে সঞ্চালকের ভূমিকায় কাজ করছে । কিন্তু একই মঞ্চে দুই বন্ধু থাকলে খু-নসুটি মজা ভিডিও ইত্যাদি হবে এমনটা তো আগে থেকে বলা যেতেই পারে । তবে স্টেজ এর মধ্যে নয় বরং অন স্ক্রীন এর বাইরে ভিডিও কলের মধ্যে ছোট্ট একটি খু-নসুটি ঘটনা ধরা পরল সম্প্রতি ।

সম্প্রতি লকডাউন এ বাড়িতে বসে অঙ্কুশ হাজরা তার অনুগামীদের সাথে প্রশ্ন-উত্তর খেলা খেলছিল ইনস্টাগ্রামে সেখানে কেউ একজন প্রশ্ন করেছে দাদা তুমি অনেক কালো হয়ে গেছে এবং তার উত্তর দিতে গিয়ে অঙ্কুশ হাজরা বলেন যে আমি কাল হয়ে যাওয়াতে যে সবথেকে বেশি খুশি হবে তাকে আমি মেনশন করছি । এবং তিনি শেষ পর্যন্ত মেনশন করলেন শুভশ্রী গাঙ্গুলী কে । অর্থাৎ তিনি এমন টা বুঝাতে চাইলে যে অঙ্কুশ হাজরা যদি কালো হয়ে যায় তাহলে সবথেকে বেশি খুশি হবে শুভশ্রী গাঙ্গুলী । কিন্তু কেন ? শুধু কি বন্ধুত্বের খাতিরে ধরনের কথাবার্তা নাকি আলাদা কোনো কারণ রয়েছে তা এখনও জানা সম্ভব হয়ে ওঠেনি ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button