তবে কি সম্পর্কে ফাটল ধরল শ্রাবন্তীর ছেলে ঝিনুক ও পুত্রবধু ও ধমনীর মধ্যে? ঝিনুককে ইনস্টাগ্রামে পাত্তা দেন না দামিনী! মুহূর্তে ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- পরিচালক রাজীব বিশ্বাসের সাথে বিয়ে হয়েছে মাত্র ১৬ বছর বয়সে । তারপর সেই সম্পর্ক বেশিদিন টেকেনি । কিন্তু ততদিনে জন্ম নিয়েছে তাদের ছোট্ট পুত্র সন্তান । যার নাম ঝিনুক বা অভিমুন্য । যে এখন বর্তমানে মাঝেমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ার হট সেন্সেশন হয়ে ওঠে শুধুমাত্র তার প্রেমিকাকে নিয়ে । চ্যাম্পিয়ন সিনেমার মাধ্যমে অভিনয় জগতে পদার্পণ ঘটলেও শ্রাবন্তীর ব্যক্তিগত জীবনে কিন্তু থেকে গেছে তাই মাঝে মধ্যে দখল করে তিনি খবরের শিরোনাম এবং পরপর তিনটি বিয়ে করার পর নেটিজেনরা তাকে কটুক্তি শিকার হতে হয় প্রতিনিয়ত ।

তবে যদি প্রশ্ন আসে তার ছেলে অভিমুন্য চ্যাটার্জী সম্পর্কে তাহলে কিন্তু এমনটা বলতেই হয় যে অভিমুন্য চ্যাটার্জী গত তিন বছর ধরে বিখ্যাত মডেলের দামিনী ঘোষের সাথে সম্পর্ক রয়েছে । একদম ঠিক শুনেছেন এর আগে কেউ জানত না বরং বছরের শুরুতে এই ঘটনাটি প্রকাশ এনেছিলেন তার ছেলে নিজেই তাদের দুজনের একসাথে ছবি শেয়ার করে তিনি ক্যাপশনে লিখেছিলেন যে আপনি যে নাম্বারটি ডায়াল করছেন সেটি এখন ভালোবাসায় ব্যস্ত আছে ভালোবাসার তিন বছর সম্পন্ন । শ্রাবন্তী তরফ থেকে কোনো রকম কোনো অভিযোগ ছিল না তাঁর ছেলের বউ এর সম্পর্কে ।

একাধিকবার যখন যেখানে মন গেছে তখন সেখানে ছুটে পালিয়ে গেছেন অভিমুন্য চ্যাটার্জী এবং দামিন । কখনো পাহাড় কখনো বালির শহর কখনো আবার সমুদ্র কে সাক্ষী রেখে ভাগ করে নিয়েছে নিজেদেরকে মুহূর্ত। কিছুদিন আগে কাশ্মীর থেকে ঘুরে এলেন অভিমুন্য চ্যাটার্জী এবং দামিনি – সেখানে একটি পাথরের উপর বসে পোস্ট দিয়ে দুজনে ফটো শেয়ার করেছেন তার নিজস্ব সোশ্যাল মিডিয়ায় কিন্তু অবাক করার মত কান্ড হলো যে তারা এতটা ঘনিষ্ঠ থাকলেও ইনস্টাগ্রামে একে অপরকে ফলো করে না ।

একদমই ঠিক শুনেছেন অভিমুন্য ইনস্টাগ্রাম ঘেঁটে যেমনটা বোঝা গেল যে তার ফলোইং লিস্টে কেউ নেই । এমনকি নেই তার মা শ্রাবন্তী চ্যাটার্জী । অপরদিকে দামিনি ঘোষ কিন্তু তার হবু শাশুড়ি মা অর্থাৎ শ্রাবন্তী চ্যাটার্জী ইনস্টাগ্রামে ফলো করেন এবং প্রতিনিয়ত তার বিভিন্ন পোস্টে লাইক করেন ।তাহলে কি এদের মধ্যে অদৃশ্য অটুট সম্পর্ক রয়েছে নাকি এরা একটু ব্যতিক্রমী?

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button