কালো শ্যামাকে সবাই মানছে, আমি কালো বলে কেন মানছে না, রে-গে গেলেন অভিনেত্রী শ্রুতি দাস, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- প্রতিনিয়ত বাড়ছে ক-টাক্ষের প্র-বণতা । এবার সহ্য সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে নেটিজেনরা ।তাইতো পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন অভিনেত্রী শ্রুতি দাস । একদমই ঠিক শুনেছেন ত্রিনয়নী ধারাবাহিকের নয়নের চরিত্রে অভিনয় করা এবার পু-লিশের দ্বারস্থ হয়েছেন । কারণ একাধিকবার নেটিজেনদের কু-রুচিকর ম-ন্তব্যের শি-কার হয়েছেন তিনি । যদিও সে সমস্ত ঘটনাগু-লিকে তিনি এ-ড়িয়ে যেতেন । এতদিন কিন্তু এবার তার মনে হয়েছে যে এড়িয়ে যাওয়া তার ভুল হয়েছে প্রথমেই পদক্ষেপ নেওয়া উচিত ছিল এবার সেই কাজটি করলেন।

শ্রুতি দাস কে প্রথম বারের মতন দেখা গিয়েছিল ত্রিনয়নী ধারাবাহিকের । তবে সম্প্রতি তিনি দেশের মাটির ধারাবাহিকের সাথে যুক্ত রয়েছেন । কিন্তু অনুরাগীদের একাধিক কু-রুচিকর ম-ন্তব্যের জন্য মানসিক বিপর্যস্ত তিনি তাইতো লাইভে এসে মোক্ষম জবাব দিলেন তিনি ।তুলে ধরলেন অন্য এক অভিনেত্রী কথা । এবং তার সাথে নিজেকে তুলনা করলেন। তিনি বলেন যে কৃষ্ণকলি ধারাবাহিকের শ্যামা যে কাল দেখানো হয় টিভির পর্দায় ।কিন্তু বাস্তবে তিনি অত্যন্ত ফর্সা ।

মেকআপ করে অভিনয়ের জন্য তাকে কাল দেখা নয় । তাকে যদি দর্শক মেনে নিতে পারছে তাহলে বাস্তবে যে কাল তাকে কেন মেনে নিতে পারছে না ।কোথায় পার্থক্য রয়েছে তার আর আমার মধ্যে। সত্যি তো একথা ঠিক আমরা যতই উন্নত হয় না কেন আমাদের মানসিকতা এখনও অনেকখানি নিচে অবস্থান করছে । তাই তো সমাজে একজন কালো মেয়েকে আমরা অন্য চোখে দেখে থাকি । ঠিক তেমনি দেখা গেল অভিনেত্রীর জীবনে একি ঘটনা ঘটতে। অভিনেত্রী বলে ছাড় পেয়ে গেছেন তেমন কিন্তু নয় ।

একাধিকবার কু-রুচিকর ম-ন্তব্যের শি-কার হয়েছেন কিন্তু লাইভে এসে তিনি বলেন যে কৃষ্ণকলি ধারাবাহিকের শ্যামার চরিত্রে অভিনয় করা তিয়াসা রায় বাস্তব জীবন অত্যন্ত ফর্সা। কিন্তু তাকে অভিনয়ের জন্য মেকআপ করে কাল দেখানো হয় । তাকে যদি দর্শকরা মেনে নিতে পারছেন তাহলে আমাকে কেন নয় শুধু মাত্র এখানেই তিনি থেমে থাকেননি তিনি বলেন এ দর্শকরা আমাকে আমার চরিত্রে মেনে নিতে পারছে না শুধুমাত্র আমার গায়ে রংয়ের জন্য । এমনকি আমাকে কাক বলে আখ্যায়িত করেছেন । এবং প্রতিনিয়ত এই ধরনের মন্তব্য শুনতে শুনতে তিনি মা-নসিকভাবে বি-পর্যস্ত হয়ে পড়ছেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button