নিজের হাতে মাংস রান্না করে খেলেন রানু মন্ডল! শেয়ার করলেন রেসিপি! দারুন ভাইরাল হল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আমাদের আশেপাশে প্রতিনিয়ত বাড়তে থাকা সেলিব্রিটিদের সংখ্যার মধ্যে এমন কিছু মানুষ নিযুক্ত হয়ে যায় যাদেরকে আমরা হয়তো সেই জায়গাতে কখনও কল্পনা করিনি। মানুষ তো প্রতিদিনই চাই যে একসময় সে যেন জনপ্রিয়তা লাভ করতে পারে। কারণ জনপ্রিয় হয়ে উঠলে মুহূর্তের মধ্যে নাম যশ খ্যাতি টাকাপয়সা কোনো কিছুরই অভাব হয়না তার। প্রত্যেকে বর্তমান যুগে জনপ্রিয় হতে চায়।

যদি কাউকে এখনকার যুগে বাচ্চা ছেলেদের কে জিজ্ঞেস করা হয় যে সে বড় হয়ে কি হতে চায় তাহলে তার কাছ থেকে যে উত্তরটি খুব সাধারণভাবে উঠে আসবে সেটি হলো সেলিব্রিটি। আট থেকে আশি সকলেই কিন্তু জনপ্রিয়তার এ প্রতিযোগিতায় নাম লিখিয়েছে। কিন্তু কেউ কেউ আবার না চাইতেও জনপ্রিয় হয়ে যায় শুধুমাত্র তার লুকিয়ে থাকা প্রতিভার মধ্যে দিয়ে। এই যেমন ধরুন রানাঘাট স্টেশন চত্বরে গান গাওয়া রানু মন্ডল।

তাঁর গাওয়া গানটি সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করেন এক পথযাত্রী। তারপরও তাকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি সোজা রানাঘাট স্টেশন থেকে পাড়ি দিয়েছিল মুম্বাই বিলাসবহুল স্টুডিওতে। সেখানে জনপ্রিয় গায়ক হিমেশের সাথে একটি গান রেকর্ড করেন তিনি। যা সরিয়ে তোলে প্রতিনিয়ত তার জনপ্রিয়তাকে এবং কোথাও যেন হঠাৎ করে না চাইতে এতো কিছু পেয়ে যাওয়ার জন্য রানু মন্ডল এর শরীরে জন্ম নেয় তুমুল অ-হংকার।

পাঠ্যপুস্তকে আমরা মনটা জেনেছিলাম যে অহংকার হচ্ছে পতনের মূল কারণ তার বাস্তব চিত্র দেখা গিয়েছিল রানু মন্ডল এর সাথে। একাধিক জায়গাতে নাম এবং খ্যাতি অর্জন করার সুবাদে তার শরীরের জন্মেছিল বিপুল পরিমাণে অহংকার। যার ফলে তার অবস্থা ঠিক পুনরায় সেরকম হয়ে গিয়েছিল যেখান থেকে যেখান থেকে তিনি যাত্রা শুরু করেছিলেন। লকডাউন এর সময় তার অবস্থা আরো শোচনীয় হয়ে গিয়েছিল।

সেই সময় বেশ কিছু ইউটিউবার তার বাড়িতে গিয়ে তাকে আর্থিক সাহায্য করে এসেছিল ঠিক কথা কিন্তু তাতে সমাধান হয়নি স্থায়ীভাবে। সম্প্রতি একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে ইউটিউবে সেখানে দেখা যাচ্ছে নিজের বাড়ির মধ্যে চিকেন রান্না করে খাচ্ছেন রানু মন্ডল ।তার পাশাপাশি তিনি নিজের কিছু বক্তব্য তুলে ধরছেন। লাল রঙের নাইটি পরা অবস্থায় ওই দিন দেখা গিয়েছিল রানু মন্ডল কে। যদিও রানু মন্ডলের মানসিক অবস্থা সঠিক নয় বলে দাবি করে অনেকে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button