প্রয়াত অভিনেতা তাপস পালের মেয়েকে চেনেন, রূপে হার মানাবে বলিউড সুন্দরীদেরও, রইল ছবি ও ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- বাংলার অভিনয় জগতে তাঁর অবদান অনেকখানি । প্রায় ১০০ টিরও বেশি ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি । শুধুমাত্র টলিউড নয় বলিউড রয়েছে তার প্রভাব । বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেবশ্রী রায়ের সাথে তিনি অভিনয় করতেন । বলুনতো কোন অভিনেতার কথা বলতে চলেছে । তবে আরেকটি বিষয় উল্লেখ করা জরুরি সেটি হলো অভিনয় জগতের পাশাপাশি রাজনৈতিক জগতের দাপট ছিল ব্যাপক পরিমাণে। বর্তমানে কিন্তু এই অভিনেতা প্রয়াত । ঠিকই ধরেছেন আমি এই মুহূর্তে কৃষ্ণনগরের বিধায়ক বলাবাহুল্য এককালীন প্রাক্তন বিধায়ক তাপস পালের কথা বলতে চলেছি ।

দাদার কীর্তি,সুরের ভুবনে’, ‘গুরু দক্ষিণা’, ‘মায়া মমতা’, ‘সমাপ্তি’, ‘চোখের আলো’, ‘অন্তরঙ্গ’, ‘সাহেব’, ‘পর্বতপ্রিয়’, ‘দিপার প্রেম’, ‘মেজ বউ’, ‘পথভোলা’, ‘আশির্বাদ’, ‘পরশমণি’, ‘সুরের আকাশ’, ‘শুধু ভালোবাসা’সহ বিভিন্ন জনপ্রিয় চলচ্চিত্রে নায়কের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন এই অভিনেতা। এবং এই সমস্ত সিনেমা গু-লিতে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে তার সাথে অভিনয় করেছেন দেবশ্রী রায় । তবে আগেই বললাম শুধুমাত্র টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে নিজেকে আ-বদ্ধ রাখেন নি । তার পাশাপাশি ‘আবদ্ধ’ নামক একটি হিন্দি সিনেমাতে তিনি অভিনয় করেছেন ।

সেখানে স্ক্রিন শেয়ার করেছেন মাধুরী দীক্ষিতের সাথে। ২০২০ সালে তিনি বাঁশি নামক শেষ ছবিতে অভিনয় করেছেন এবং ছবিটির শ্যু-টিং চলাকালীন মাঝ পথে তার মৃ-ত্যু ঘটে । বাস্তব জীবনে তিনি নন্দিনী পাল কে বিয়ে করেছেন এবং তার একটি ছোট্ট মেয়ে রয়েছে একটি মেয়ের নাম সোহিনী পাল পাল কে ? বাবার মতন মেয়ের মধ্যেও অভিনয় দক্ষতা রয়েছে ব্যা-পক পরিমাণে তাইতো কম বয়সে ইতিমধ্যে দুটি ছবিতে অভিনয় করে ফেলেছেন তিনি । সোহিনীর প্রথম ছবি ছিল ২০০৪ সালে অঞ্জন দত্তের ‘বউ ব্যারাক্স ফরএভার’, তাঁর দ্বিতীয় ছবি কৌশিক গাঙ্গুলি পরিচালিত ‘জ্যাকপট’।

যেখানে সোহিনী একজন গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন । বহুদিন আগেই তিনি টলিউড ছেড়ে পাড়ি দিয়েছেন মুম্বাই একসময় তাপস পাল যখন মুম্বাই তার নিজের মেয়ের ফ্ল্যাটে কিছুদিন থাকার জন্য গিয়েছিলেন তখন তিনি নিজের হাতে তার মেয়েকে চা ব্রেকফাস্ট ইত্যাদি করে দিতেন । এবং একটি সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছিলেন যে আমার মেয়ে পাখির মতন টুকটুক করে কথা বলে । যদিও এখন এই অভিনেতা আর বেঁচে নেই । কিন্তু থেকে গেছে তার স্মৃতি এবং তিনি আজও আমাদের মধ্যে বেঁচে আছেন তার কাজের মাধ্যমে ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button