বিষাক্ত কো’বরা সা-প নিয়ে খে-লা দেখাতে গিয়ে হাতে কা’মড় খেলেন যুবতী, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- ছেলে নয় বরং এবার দেখা গেল এক যুবতীর সা-পুড়ে কে সা-প নিয়ে খেলা করতে । আমরা হয়তো অনেকেই এই ঘটনা জানিনা যে সাপের কোন অনুভূতি থাকে না মানুষের প্রতি । আমরা যদি বাড়িতে কুকুর পুষে রাখি তাহলে একটা সময় পর কুকুরে আমাদের প্রতি অনুভূতি চলে আসে । যার ফলে তারা কোন ধরনের ক্ষ-য়ক্ষ-তি আমাদেরকে করে না । কিন্তু সাপের ক্ষেত্রে কিন্তু এরকম ঘটনা ঘটতে দেখা যায় । দুধ দিয়ে কা-লসা-প পু-ষছি । খুব সম্ভবত এই কথাটা এর জন্যই প্রচলিত যে সা-প কখনো কারো আপন হতে পারেন না । কিন্তু সেই চিত্র কে সম্পূর্ণ ভুল প্রমাণ করে দিলেন এই যুবতী।

সা-পের কথা শুনলে গা শি-উরে ও-ঠে। সে জায়গায় সা-পকে নিয়ে খেলা করা বা সা-পের সা-থে সং-সার করা ভাবাই যায়না । কিন্তু এই যুবতী সেই অসম্ভবকে সম্ভব করেছে এবং নির্দ্বিধায় নির্ভয় সা-পের সাথে রয়েছে বছরের পর বছর ধরে । তাও আবার যেকোনো সা-প নয় বরং বি-ষাক্ত কো-বরা সা-প । কি অ-বাক হচ্ছেন? মনে হচ্ছে ঘটনাটা সত্যি নয়? কিন্তু ঘটনাটা একদমই সত্য কারণ এর প্রমাণ হিসেবে পাওয়া গেছে একটি ভিডিও যা প্রকাশিত হয়েছে একটি ইউটিউব চ্যানেলের।

সাপকে নিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে অনেক শ্রেণীর মানুষরা বেশিরভাগ গ্রামে গেলে এই ধরনের ঘটনা আপনার লক্ষ্য করতে পারবেন । কিন্তু সে ক্ষেত্রে অধিক মাত্রায় দেখা যায় পুরুষের চিত্র । অর্থাৎ পুরুষ সাপুড়ে থেকে থাকে । কিন্তু এর ব্যতিক্রম চিত্র দেখা গেল এই ভিডিওতে । এই ভিডিওর মাধ্যমে দেখা গেল যে একটি গ্রামের মধ্যে এক যুবতী সা-প খেলা দেখাচ্ছে । তার হাতে রয়েছে একটি ঝুনঝুনি এবং সেই ঝুনঝুনি র মাধ্যমে সা-পটি কে বসে এনেছে । সেই ঝু-নঝু-নি তা-লেছে তা-ল মেলাচ্ছে বি-ষধর কো-বরা সাপ টি ।

একবার দুবার ছোবল মারার চেষ্টা করলেও সেই যুবতী কিন্তু ভ-য় পেয়ে যায় নি বরং দেখিয়ে গেছেন তার সাহসিকতার পরিচয় । এর থেকে বোঝা যায় যে যে সাপের কথা শুনলে আমরা আ-তঙ্কে দশ হাত দূরে থাকি সেই সা-পকে নিয়ে প্রতিনিয়ত এই যুবতী তাহলে তা সাহসিকতা ঠিক কতখানি হতে পারে তার পাশাপাশি তাঁর প্রশিক্ষণের মাত্রা অনেক বেশি । মুহূর্তমধ্যে ভিডিওটি হয়েছে ভাইরাল । তার পাশাপাশি ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ার প্রতিটি আ-নাচে-কা-নাচে । কমেন্ট সেকশনে মাধ্যমে অনেকে ওই যুবতীর সাহসিকতার প্রশংসা জানিয়েছেন । তার পাশাপাশি সাবধান থাকার পরামর্শ দিয়েছে অনেকে। ভিন্ন রকম মন্তব্য নিয়ে ইতিমধ্যে ভিডিওটি খবরের শিরোনামে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button