দারুণ সহজে বাড়িতে এই পদ্ধতিতে ‘দুধ কাতলা’ রান্না করলে তার স্বাদ হয় দুর্দান্ত, রইলো পদ্ধতি ভিডিও সহ!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আচ্ছা আপনারা তো এর আগে পেঁয়াজ রসুন আদা বাটা ইত্যাদি দিয়ে মাছের ঝোল বা মাছ রান্না করে দেখেছেন । কিন্তু কখনো কি শুনেছেন যে কাঁচা দুধ দিয়ে কাতলা মাছ রান্না করা যেতে পারে ? যদি না শুনে থাকেন তাহলে আজকের এই প্রতিবেদনটি আপনার জন্য । কারণ আজকের প্রতিবাদে আপনাদেরকে জানাবো কিভাবে শুধুমাত্র দুধের সহযোগে বানিয়ে ফেলতে পারে সুস্বাদু মাছের ঝোল । তার পাশাপাশি সামনে জামাইষষ্ঠী তাই কাজে একটি বাড়িতে আপনি রান্না করতে পারেন এবং অনায়াসে চমকে দিতে পারেন আপনার বাড়ি জামাইকে।

এ রান্না করা খুব সহজ এবং খুব অল্প সময় লাগে । এ ক্ষেত্রে ব্যবহার হবে না কোন পেঁয়াজ রসুন। প্রথমে আপনাকে কাতলা মাছ গুলোকে ছোট ছোট অংশের কেটে নিতে হবে তবে সে গুলোকে ভাল করে ধুয়ে নিতে হবে । তারপর সেগুলির মধ্যে নুন হলুদ এবং লঙ্কা গুঁড়ো মিশিয়ে রাখতে হবে কিছুক্ষণ । এবং ততক্ষণে কড়াই এর মধ্যে তেল দিয়ে সেই তেলকে গরম হতে দিতে হবে । এবং তার মধ্যে যোগ করে দিতে হবে সে মাছের টুকরোগুলো । অর্থাৎ তেলের মধ্যে মাছ গুলোকে ভাল করে ভেজে নিতে হবে।

এবার একটি ব্লে-ন্ডারে আপনাকে একটা পরিমাণ দুধ নিতে হবে এবং তার মধ্যে যোগ করে দিতে হবে ৫-৭ টি চিনাবাদাম । দুধ এবং চিনাবাদাম কে ব্লে-ন্ড করে একটি মিশ্রণ তৈরি করতে হবে । এরপর একটি পাত্রে কিছুটা পরিমাণ সাদা তেল নিতে হবে । এবং তার মধ্যে দিতে হবে দুইটি দারুচিনি এবং দুটি শুকনো লঙ্কা । তারপর তার মধ্যে দিতে হবে এক চামচ আদা বাটা এবং এক চামচ জিরেগুঁড়ো ও ধনেগুঁড়ো । তারপর সামান্য পরিমান জল দিয়ে মসলা গুলোকে ভাল করে নাড়তে হবে । এবং তার মধ্যে যোগ করে দিতে হবে আগে থেকে তৈরি করে রাখা দুধ এবং চিনাবাদামের মিশ্রণ ।

দুধ এবং চিনাবাদামে মিশ্রণ দেওয়ার পর তার মধ্যে অতিরিক্ত আরো হাফ কাপ পরিমাণ দুধ দিতে হবে । আমরা আগেই বলেছিলাম সম্পূর্ণ রান্নাটি দুধ দিয়ে হবে । তারপর তার মধ্যে দিয়ে দেবেন সামান্য পরিমাণ কাশ্মীরি লঙ্কাগুঁড়ো । এই সমস্ত উপকরণ গুলো করার পর তার মধ্যে যোগ করে দেবেন আগে থেকে ভেজে রাখা মাছগু-লি । তারপর ঢাকা দিয়ে ৫-৭ মিনিট সেদ্ধ হতে দেবেন। তাহলে তৈরি হয়ে যাবে সুস্বাদু দুধ কাতলা ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button