পেটের চর্বি একদম উধাও মাত্র ৩০ দিনে, রসুনের সাথে এই জিনিস মিশিয়ে মাত্র এক মাস খেলেই হবে দারুন কাজ!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- অতিরিক্ত তৈলাক্ত জাতীয় খাবার খাওয়ার ফলে আপনি কি প্রতিদিনই মোটা হয়ে উঠছেন? যার ফলে রাস্তাঘাটে বেরোলে আপনাকে নিয়ে হাসি-ঠাট্টা এবং বি-দ্রূপ হচ্ছে? তাহলে আজকেরে প্রতিবেদন সম্পূর্ণ আপনার জন্য । কারণ আজকের প্রতিবেদন আপনাকে বলব মাত্র ৭ দিনে হ্যাঁ একদম ঠিক শুনেছেন মাত্র ৭ দিনে কিভাবে অতিরিক্ত মেদ ঝরিয়ে ফেলতে পারবেন আপনি আপনার শরীর থেকে । আসুন দেখে নিই কিভাবে এটি সম্ভব হবে।

আমরা আমাদের নিত্যদিনের জীবনযাত্রাকে এমন কিছু ধরনের খাবার খেয়ে থাকি যেগু-লি আমাদেরকে মোটা করে দেই প্রতিনিয়ত এবং কখনও কখনও মাত্রারিক্ত মোটা হয়ে যাওয়ার ফলে শ-রীরের যা-বতীয় রো-গ ব্যা-ধি দেখা দেয় । তাই সুস্থ স্বাভাবিক থাকা অত্যন্ত জরুরী বর্তমান সময়ে । এবং বাজারের ইতিমধ্যে অনেক ধরনের নামিদামি ও-ষুধ পাওয়া যায় যেগুলো মাধ্যমে আপনি নিজের শরীরকে আবার আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে পারবেন । কিন্তু সেগুলোতে প্রচুর পরিমাণে সা-ইড ই-ফেক্ট থাকে । কিন্তু যদি আপনি ঘরোয়া পদ্ধতিতে এই পানীয়টি ব্যবহার করেন তাহলে ফল পাবেন হাতেনাতে মাত্র ৭ দিন।

এই পানীয়টি তৈরি করার জন্য আপনাকে নিতে হবে একটি আপেল একটি কমলা লেবু বেশকিছু রসুন এবং আদা গুঁড়ো । প্রথমে আপেল গু-লিকে ছোট ছোট অংশ কে-টে অন্য একটি পাত্রে তুলে রাখতে হবে । এরপর রসুনের খোসা ছাড়িয়ে সেগু-লিকে ছোট ছোট অংশ কে-টে অন্য একটি পাত্রে তুলে রাখতে হবে । তারপর কমলা লেবুর ছাল ছাড়িয়ে সেই টুকরোগুলোকে আরো ছোট ছোট অংশের কে-টে অন্য একটি পাত্রে তুলে রাখতে হবে । এরপর একটি ব্লে-ন্ডারের মধ্যে সমস্ত উপকরণ গু-লি একসাথে নিতে হবে

অর্থাৎ আপেলের টুকরো কমলালেবুর টুকরো এবং রসুনের টুকরো একসাথে ব্লে-ন্ডার নিয়ে ভালো করে ব্লে-ন্ড করে নিতে হবে ।তারপর সেটাকে অন্য একটি পাত্রে তুলে রাখতে হবে। অন্য একটি পাত্রে তুলে রাখার পর তার মধ্যে যোগ করে দিতে হবে এক চামচ আদা । তারপর পুনরায় সেটিকে আবার আরো একবার ব্লেন্ড করে নিতে হবে । এরপর যে মিশ্রণটি তৈরি হবে সেটি প্রতিদিন সকাল বেলা খালি পেটে এক গ্লাস করে সেবন করুন পরপর সাতদিন । ৭ দিন পর আপনি নিজেই বুঝতে পারবেন এর তফাৎ । দেখবেন শরীরে অতিরিক্ত মেদ উধাও হয়ে গেছে ম্যা-জিকের মতো ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button