আছে আর মাত্র দুদিন, তার মধ্যেই করুন নাম নথিভুক্তকরণ! মিলবে এককালীন ৪০০০ টাকা ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- হাতে মাত্র আর একটা দিন এই একদিনের মধ্যে যদি আপনি নিজের নাম নথিভুক্ত না করেন তাহলে হাত থেকে চলে যাবে কর করে চার হাজার টাকা । একদমই ঠিক শুনেছেন কারণ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কিষান সম্মান নিধি প্রকল্প কৃষকদেরকে ২০০০ টাকা করে অনুদান দিচ্ছিল । কিন্তু সেই প্রকল্পের নাম নথিভুক্ত করার শেষ তারিখ ৩০ শে জুন । ৩০ জুনের মধ্যে যদি আপনি নাম নথিভুক্ত না করেন তাহলে কিন্তু আপনি এই সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবেন । যারা নাম নথিভুক্ত করেছেন তাদের উদ্দেশ্যে জানানো হয়েছে যে দুই তারিখের মধ্যে তাদের একাউন্টে দুটো কিস্তির টাকা পৌঁছে যাবে অর্থাৎ ৪০০০ টাকা পৌঁছে যাবে।

২০১৪ সালে ক্ষ-মতায় আসার পর থেকে একের পর এক জনহিতকর কাজ করে চলেছে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী । কোন কোন কাজে বি-তর্ক থাকলেও অনেক কাজে মিলেছে সফলতা এবং প্রশংসা । তার পাশাপাশি ভারতকে অন্যান্য দেশের তুলনায় এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী জনহিতকর প্রকল্পগু-লির যথেষ্ট সময় উপযোগী বলে মনে করেছেন অনেকে । ঠিক তেমনি দেশের দারিদ্রসীমা কমিয়ে আনতে এবং বেকারত্বের সংখ্যা কমিয়ে আনতে বিভিন্ন ধরনের প্রকল্পের কথা বা শিল্প সংস্থা জানিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদি । এবার কৃষকদের সাহায্য করতে এগিয়ে এসেছে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদি ।

এই প্রকল্পের আবেদন করতে হবে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে। প্রথমেই আপনি লগইন করুন pmkisan.gov.in । তারপর ওই ওয়েবসাইটে আপনার আধার নম্বর দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করুন। সমস্ত নথি আপলোড করুন। আপনার সমস্ত নথি খতিয়ে দেখে আপনাকে অনুমোদন দেবে প্রশাসন। আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টটিকে খতিয়ে দেখার পর আপনি যদি যোগ্য কৃষক হন তবে আপনার অ্যাকাউন্টে এই প্রকল্পের টাকা পৌঁছে যাবে।

এবার আপনার মনে প্রশ্ন আসতে পারে কারা ? কারা এই প্রকল্পের অধীনে থাকতে পারেন,? অবশ্যই যাদের ব্যক্তিগত মালিকানার জমি রয়েছে । তার পাশাপাশি সরকার এবং রাজ্য স্তরের বিভিন্ন আধিকারিক এর জন্য আবেদন করতে পারে । তবে বর্তমান সাংসদ মন্ত্রী কাউন্সিলার বা অন্যান্য কোন পদের অধিকারী এই প্রকল্পের আওতায় নিজেদেরকে অন্তর্ভুক্ত করতে পারবে না । ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার বা একাউন্টেন্ট এই সমস্ত পেশাদারী মানুষরা কখনো এর প্রকল্পের নিজেকে নিযুক্ত করতে পারবে না ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button