স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডে মিলবে ১০ লক্ষ টাকা, কারা কারা পাবেন, কিভাবে পাবেন, রইল বিস্তারিত!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- এখন আশেপাশে প্রতিটি ছাত্র ছাত্রীদের মুখে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জয়গান লক্ষ্য করা যাচ্ছে । কারণ সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই রাজ্যের প্রতিটি ছাত্র ছাত্রীদের জন্য ঘোষণা করেছে এমন একটি প্রকল্প যা শুনে রীতিমতো আনন্দে আ-ত্মহারা প্রত্যেকে ।কারণ আমাদের এই পশ্চিমবঙ্গে এমন বহু সংখ্যক ছাত্রছাত্রী রয়েছেন যারা শুধুমাত্র টাকা পয়সার অ-ভাবে পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারেনি ।

এবার তেমন কোনো সমস্যা দেখা দেবে না ।কারণ রাজ্য সরকারের তরফ থেকে দেওয়া হচ্ছে স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত লোন হিসেবে নিতে পারেন । তাহলে হয়তো আপনাদের মনে প্রশ্ন আসতে পারে যে সাধারণ লোনা স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডের মধ্যে কি পার্থক্য রইল । অবশ্যই অনেকখানি পার্থক্য রয়েছে ।ব্যাংক থেকে যদি আপনি এডুকেশন লোন নিতে চান সেক্ষেত্রে আপনাকে কিছু গ্যারান্টার জমা রাখতে হবে ।

অর্থাৎ কোন জমির দলিল বা কোন গয়নাগাটি ইত্যাদি জমা রাখতে হবে । কিন্তু এক্ষেত্রে কোন গ্যারান্টার এর প্রয়োজন হবে না ।বরং রাজ্য সরকার নিজেই এর গ্যারান্টার । এর পাশাপাশি আপনাকে টাকা শোধ করার জন্য কেউ চাপ দেবে না । নির্দিষ্ট সময় অনুসারে আপনার ধীরেসুস্থে টাকা শোধ করতে পারবেন । এবং সুদের পরিমাণ খুব সামান্য পরিমাণ নেয়া হবে।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তথ্য অনুযায়ী যে চাকরি পাবার পর ১৫ বছর আপনার হাতে সময় থাকবে এই টাকা পরিশোধ করার জন্য । কিন্তু প্রশ্ন থাকছেই যদি কোনো কারণে চাকরি না পাওয়া যায় তাহলে কি এই টাকা শোধ করা যাবে ? সে বিষয়ে এখনো পর্যন্ত কোনো সুনির্দিষ্ট উত্তর পাওয়া যায়নি রাজ্য সরকারের তরফ থেকে । কিন্তু এমন তো অনুমান করা যেতেই পারে যে আপনি চাকরি পেলে তার থেকে ১৫ বছরের মধ্যে খুব স্বল্প পরিমাণ টাকা দিয়ে দিয়ে এই লোন শোধ করতে পারেন ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button