পাঠ্যবই থেকে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গল্প বাদ দেওয়ায় বিজেপিকে দুষলেন অভিনেত্রী ও যুব তৃণমুলের সভানেত্রী সায়নী ঘোষ! তুমুল ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আমরা জানি যে বাংলা এবং বাঙালির গর্ব হচ্ছে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর । রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর শুধুমাত্র যে এই বাংলার সম্পদ তেমনটা কিন্তু নয় । গোটা বিশ্বের কাছে এক গর্বের বিষয় । তাই বিভিন্ন পাঠ্য সিলেবাসে তার লেখা কিছু কবিতা ছোটগল্প সংযুক্ত করা হয়ে থাকে । ঠিক তেমনি পশ্চিমবঙ্গ শিক্ষা পর্ষদ থেকে শুরু করে ভারতবর্ষের বিভিন্ন জেলাতে তার বিভিন্ন লেখা ছোটগল্প কবিতাগুলি সংযুক্ত করা হয়েছিল । কিন্তু এবার সেই পথ থেকে সরে দাঁড়ালো উত্তরপ্রদেশ সরকার । একদমই ঠিক শুনেছেন আর এই নিয়ে তুমুল তরজা শুরু হয়েছে গোটা নেট দুনিয়াতে ।

রাজনৈতিক জগতে বেশ কিছুদিন হল আগমন ঘটেছে তার । অভিনয় জগতে দাপিয়ে বেড়িয়েছে এতদিন । সেই সায়নী ঘোষ এবার মুখ খুললেন উত্তরপ্রদেশে পাঠ্য সিলেবাস থেকে বাদ পড়ে যাওয়া রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছুটি কবিতাটির জন্য । একদম ঠিক শুনেছেন । যোগী আদিত্যনাথের সরকার এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছিলেন বা হয়েছেন যে তারা তাদের পাঠ্য সিলেবাস থেকে বাদ দিয়ে দেবে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের এই কবিতাটি । যার ফলে রীতিমত বিক্ষোভে ফেটে পড়ছে গোটা দেশবাসী । কেন এই ধরনের সিদ্ধান্ত উপনীত হলেন তা এখনো পর্যন্ত স্পষ্ট নয় ।যদিও তার ব্যাখ্যা কিছুটা হলেও দিয়েছেন রাজনীতিবিদ অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ ।

সায়নী ঘোষ বরাবরই লড়াকু একজন সংগ্রামী রাজনীতিবিদ । ভোটে জয়লাভ না করতে পারলেও তী-ব্র আ-ক্রমণ এর মাধ্যমে মন জয় করে নিয়েছেন এই বাংলার মানুষের মন । এবার সেই সায়নী ঘোষ মুখ খুললেন উত্তরপ্রদেশের পাঠ্য সিলেবাস থেকে বাদ চলে যাওয়া রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছুটি কবিতাটির জন্য । সম্প্রতি জানা যাচ্ছে যে উত্তরপ্রদেশের দ্বাদশ শ্রেণীর পাঠ্য সিলেবাস থেকে বাদ পড়ে গেছে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছুটি ইংরেজি অনুবাদ কবিতা টি তার জায়গায় যুক্ত হয়েছে যোগী আদিত্যনাথ এবং বাবা রামদেবের লেখা সেই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন সায়নী ঘোষ।

তিনি জানান বাংলায় বিজেপি জিততে পারেনি তাই প্রতিহিংসাপরায়ন হয়েই রবীন্দ্রনাথের লেখাকে তারা বাদ দিয়েছে সিলেবাস থেকে।পাশাপাশি তিনি জানান উত্তরপ্রদেশের মানুষের জন্য তার করুণা হচ্ছে। কারণ তারা আসল কবিগুরুকে হারিয়ে একজন নকল গুরুদেব এবং যোগীর লেখা পড়তে বাধ্য হচ্ছেন।তবে অবাক করার মত বিষয় হলে এটি যে শুধুমাত্র যে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতা বাদ পড়েছে তেমন কিন্তু নয় এর আগে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণন থেকে শুরু করে সরোজিনী নাইডু, মুকুল আনন্দ এবং আর কে নারায়ন এর মত প্রখ্যাত লেখক লেখিকার লেখাও বাদ পড়েছে সিলেবাস থেকে। রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক ভাবে শুরু হয়েছে এর তরজা ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button