Sbi তে একাউন্ট থাকলে আগে এই খবর আগে জানুন, উধাও হয়ে যাচ্ছে একাউন্টের লক্ষ লক্ষ টাকা!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- এবার নয়া বিপদ হাজির হলো সাধারণ ব্যাংক গ্রাহকদের সামনে । এবার রীতিমতো ব্যাংকে টাকা রাখা দু-শ্চিন্তার অন্যতম কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে সাধারণ মানুষের পক্ষে আমরা আমাদের সারা জীবনের বলাবাহুল্য সারা বছরের উপার্জন জমা করে রাখি ব্যাংক এর মধ্যে তার অন্যতম একটি প্রধান কারণ হচ্ছে নিরাপত্তা । যেহেতু এখানে নিরাপত্তা অধিক পরিমাণে পাওয়া যায় তা এদেশের অধিকাংশ মানুষ দ্বারস্থ হয়েছে ব্যাংকের । কিন্তু কখনো যদি এমনটা হয় যে সেই ব্যাংক থেকে টাকা চুরি হয়ে গেছে আপনার সারা জীবনের উপার্জন করা সঞ্চয় করা টাকা ।

যদি কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে গায়েব হয়ে যায় সব টাকা ব্যাংক থেকে তাহলে নিশ্চয় আপনার হার্ট অ্যাটাকের মতন পরিস্থিতি । আসবে এবার সেরকমই চিত্র দেখা গেছে ভারতবর্ষে । আমরা জানি যে দেশের সবথেকে বড় রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক হচ্ছে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া । কয়েক কোটি গ্রাহক স্টেট ব্যাংকের সঙ্গে প্রতিনিয়ত যুক্ত থাকছে । আদান-প্রদান হচ্ছে কয়েক লক্ষ কোটি টাকা । কিন্তু এই সুযোগকে কাজে লাগিয়েছে বিভিন্ন হ্যাকাররা । তারা গ্রাহকদের মোবাইলে একটি মেসেজ প্রেরণ করেছে যা যেখানে লেখা রয়েছে আপডেট ইওর কেওয়াইসি।

তার পাশাপাশি সেই মেসেজের সাথে জুড়ে দেওয়া হচ্ছে একটি লিংক । যদি কোনো গ্রাহক ভুলবশত সেই লিঙ্কে ক্লিক করে ফেলে তাহলে মুহূর্তের মধ্যে গায়েব হয়ে যাচ্ছে লক্ষাধিক টাকা । এমনটা নজরে এসেছে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার ।তাই তারা প্রতিটি গ্রাহকদেরকে সতর্ক করছে। প্রতিবেদন অনুযায়ী জানা যাচ্ছে গ্রাহকদের ফোনে ‘update your KYC’ মেসেজ ও তার সাথে একটি লিংক এ টাচ করে পাঠানো হচ্ছে। কোনো কারণবশত সেই লিঙ্কে গ্রাহক ক্লিক করলে গ্রাহকদের একটি নতুন পেজ খুলে যাবে।

সেই পেজে ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড এর মত পার্সোনাল তথ্য জানতে চাওয়া হয়। এছাড়াও ক্যাপচা কোড দিতে বলা হয়।সবশেষে একটি OTP গ্রাহকের রেজিস্টার মোবাইল নাম্বারে প্রেরণ করে ভেরিফিকেশন প্রক্রিয়া করার পর গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট নম্বর জন্মতারিখ ইত্যাদি তথ্য জানতে চাওয়া হয়। এবং সবশেষে একটি ফাইনাল OTP দিতে বলা হয়। এই প্রক্রিয়াটি হয়ে হয়ে গেলেই গ্রাহকের অ্যাকাউন্টে এর পুরো টাকা গায়েব করে দিচ্ছে হ্যাকাররা।এছাড়াও হ্যাকাররা আরো এক রকম ভাবে গ্রাহকদের প্রতারণার ফাঁদে ফেলছে।

SBI গ্রাহকদের ৫০ লাখ টাকা পুরস্কার দেওয়ার দাবি করছে হ্যাকার গ্রুপ। সেখানেও একই রকমভাবে লিংক প্রদান করা হচ্ছে। সম্প্রতি গ্রাহকদেরকে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া জানিয়েছে এই সমস্ত ফ্রড কেস থেকে বিরত থাকার জন্য । কারণ স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া কখনো আপনাকে পুরস্কারের লোভ দেখাবে না । তাই কোনো কারণবশত যদি এই ধরনের মেসেজ আপনার ফোনে এসে থাকে তাহলে সেখানে দেওয়া লিংকে কখনোই ক্লিক করবেন না ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button