সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের পর ফের শোক সংবাদ বাংলা সিনেমায়, ঘুমের মধ্যেই চলে গেলেন এই জনপ্রিয় অভিনেতা!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-দেশের এই ভ-য়াবহ প-রিস্থিতিতে আমাদের ছেড়ে প-র-লো-কগ-মন করেছেন আমাদের অনেক প্রিয় জন । তার পাশাপাশি সেই শো-কের ছা-য়া কখনো কখনো নেমে এসেছে টলিউড বা বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে । গায়ক-গায়িকা পরিচালক অভিনেতা অভিনেত্রী সকলের মধ্যেই একই চিত্র দেখা গেছে । কেউ না কেউ ছেড়ে চলে গেছে আমাদেরকে এই কঠিন সময়ে । দুঃ-সংবাদে প্রতিনিয়ত ভরে উঠছে আমাদের জীবন ।ফের আরও একবার টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে শো-কের ছা-য়া নেমে এল ।কারণ প্রয়াত হলেন এই বিখ্যাত পরিচালক ।

তিনি ১৯৪৪ সালে পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ পুরুলিয়ার নিকটবর্তী আনারাতে একটি বৈদিক পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন, এবং নয় জন ভাইবোন ছিলেন। তার বাবা তারকান্ত দাশগুপ্ত ভারতীয় রেলওয়ের একজন ডা-ক্তার ছিলেন, এইভাবে তিনি শৈশবের প্রথম অংশ অতিবাহিত করেছিলেন । তিনি ছিলেন একজন ভারতীয় কবি এবং বিখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা। তাঁর নির্মিত চলচ্চিত্রগুলোতেও কবিতার ছোঁয়া বিদ্যমান ছিল। তার বিখ্যাত কয়েকটি ছবি হল বাঘ বাহাদুর, তাহাদের কথা,চারাচার ও উত্তরা। শ্রেষ্ঠ পাঁচটি চলচ্চিত্র বাঘ বাহাদুর , চরাচর , লাল দরজা ,

মন্দ মেয়ের উপাখ্যান , কালপুরুষ , দৌরাতওয়া এর জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, এবং তাহাদের কথা বাংলাতে শ্রেষ্ঠ ফিচার ফিল্মের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতেছেন। পরিচালক হিসেবে তিনি উত্তরা এবং স্বপনের দিন এর জন্য দুইবার সেরা নির্দেশনার জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতেছেন। তিনি আর কেউ নন বরং বিখ্যাত পরিচালক বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত । তার অবদান এখনো পর্যন্ত ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে গোটা টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে । তার হাত ধরে উত্থান ঘটেছিল এই যুগের বহু নায়ক-নায়িকার ।

কিন্তু সবাইকে ছে-ড়ে প-রলো-ক গ-মন ক-রলেন তিনি তবে ক-রোনা আ-ক্রান্ত হয়ে নয় বরং কি-ডনির রো-গে ভু-গ-ছিলেন তিনি । প্রতিনিয়ত চলছে ডা-য়ালাই-সিস। অবশেষে নিজের বাসভবনে অর্থাৎ দক্ষিণ কলকাতার নিজের বাসভবনে শে-ষনিঃ-শ্বাস ত্যা-গ ক-রেছেন তিনি । তার স্ত্রী সোহিনী দাশগুপ্ত সেদিন দেখেন যে তার হাত পা ঠান্ডা হয়ে গেছে । তখন তিনি বুঝতে পারেন তিনি আর তাদের মধ্যে নেই । তার দুই মেয়ে থাকে মুম্বাই খবর পেয়ে তারা সেখান থেকে রওনা দিয়েছে । যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তার শে-ষকৃ-ত্য সম্পন্ন করা হবে। তার এই অভাব বা শূন্যতা পূরণ করা যাবে না কোনোদিন । মুখ্যমন্ত্রীর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই ঘটনাতে শো-কাহ-ত গ-ভীর ভা-বে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button