গো-প’ন ক্যামেরায় একসঙ্গে দেখা গেলো শোভন-বৈশাখীকে, ভাইরাল হলো ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- রাজ্যে রাজনীতি ফের উ-ত্তপ্ত । ২০২১ এর বিধানসভা ভোট নিয়ে চর্চা ছিল সকলের মধ্যে । কে আসবে বাংলার ক্ষ-মতায় সে নিয়েছিলো অনেকগুলো প্রশ্ন ।তবে ইতিমধ্যে ফলাফল ঘোষণা হয়ে গেছে এবং পুনরায় তৃতীয়বারের জন্য ক্ষ-মতায় এসেছে শা-সক দল অর্থাৎ তৃণমূল কংগ্রেস। কিন্তু পুনরায় আরো একবার রাজ্যে রাজনীতি উ-ত্তপ্ত হয়েছে সিবিআই এবং ‘নারদ’ মা-মলা নিয়ে ।

আমরা দেখেছিলাম ‘নারদ’ কা-ন্ডে অভিযুক্ত এদের মধ্যে ৪ হেভিওয়েট নেতা ও মন্ত্রীদের কে সিবিআই গ্রে-প্তার করেছিল নিজাম প্যালেস থেকে । তাদের মধ্যে ববি হাকিম মদন মিত্র সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়ের নাম ছিল ।এই চারজনের মধ্যে তিনজন শা-সকদলের হলেও একজন প্রাক্তন বিধায়ক ছিলেন শা-সকদলের ।বর্তমানে বিরোধী দলের নাম লিখিয়েছিলেন তিনি ।ইতিমধ্যে আপনারা নিশ্চয়ই বুঝতে পেরেছেন আমি কার কথা বলতে চলেছি ।

ঠিকই ধরেছেন আমি এই মুহূর্তে শোভন দেব চট্টোপাধ্যায় কথা বলতে চলেছি । শোভন চট্টপাধ্যায়ের নাম শুনলে যে কথাটি সর্বপ্রথম মাথায় আসে সেটি হল রত্না এবং বৈশা খি । ত্রিমুখী এই প্রেমের ল-ড়াই খুব পরিচিত রাজ্যের মানুষের কাছে । এই নিয়ে অনেক কটুক্তি হাসির খোরাক তৈরি হয়েছে বর্তমান বাজারে । কিন্তু তার পাশাপাশি অনেকে আবার এমনটাও বলতে শোনা গেছে যদি কখনো বন্ধুত্বের হাত বাড়ানো হয় তাহলে শোভন-বৈশাখী মতন হওয়া উচিত ।

যারা যেকোনো মূল্যে সব কিছুকে বিসর্জন দিতে পারে কিন্তু কখনো বন্ধুত্ব কে নয় । সেই শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখীকে দেখা গেল একটি শাড়ির দোকানে । সম্ভবত তারা নিজেদের জন্য অর্থাৎ বৈশাখের জন্য কেনাকাটা করতে এসেছিলেন । সাথে ছিলেন বৈশাখীও এবং গোপন ক্যামেরায় ধরা পড়েছে তাদের সেই চিত্র ।যা পরবর্তী ক্ষেত্রে একটি ইউটিউবে চ্যানেলে সেই ফুটেজ প্রকাশিত হয়েছে । তারপরেই শুরু হয়েছে চা-ঞ্চল্য । ইতিমধ্যে সেই ভিডিওটি পুনরায় বাড়িয়ে তুলেছে জ-ল্পনা । যদিও এটা খুব স্বাভাবিক ভাবে দেখছেন অনেকে ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button