দ্রুত লম্বা হওয়ার দারুণ উপায়, মাত্র একমাসে হাতেনাতে ফল পাবেন, রইল দারুণ পদ্ধতি!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আমাদের শরীর গঠনের ক্ষেত্রে উচ্চতা একটা আলাদা মাত্রা সৃষ্টি করে । এমন অনেক চাকরির রয়েছে যেখানে উচ্চতায় প্রধান কারণ হয়ে দাঁড়ায় । যেমন ধরুন ডিফেন্স বা পু-লিশের কাজের ক্ষেত্রে নিয়োগের ক্ষেত্রে উচ্চতা কে সবথেকে বেশি প্রাধান্য দেয়া হয় ।আপনি যদি তাদের শর্ত অনুযায়ী উচ্চতা বিশিষ্ট না হতে পারেন তাহলে কিন্তু আপনি সেই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারবে না । অর্থাৎ মেডিকেল আনফিট বলে ঘোষণা করা হবে আপনাকে । তাই উচ্চতা দিকে নজর রাখা অতি অবশ্যই দরকার।

জিনগত কারণে উচ্চতা অনেকটা নির্ভর করে । কিন্তু তবুও কিছুটা পরিমাণ চেষ্টাচরিত্র করলে উচ্চতা বৃদ্ধি ঘটানো যেতে পারে । আমরা যে সময় বেড়ে ওঠে অর্থাৎ আমাদের উচ্চতা যে সময় সব থেকে বেশি বৃদ্ধি পায় সেই সময় আমরা অপরিণত মস্তিষ্কে থাকি । কোনটা ঠিক কোনটা ভুল সে সম্পর্কে কোন জ্ঞান থাকেনা । তার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বাইরের খাবার খাওয়ার ফলে এর প্র-ভাব প-ড়তে পারে । সাধারণত দশ থেকে পনের বছর অব্দি উচ্চতা সবথেকে বেশি বৃদ্ধি পায় । তারপর ১৫-২১ বছর অব্দি বৃদ্ধি পায় উচ্চতা ধীরে ধীরে ।

অনেকেই ইউটিউবে বা আলাদা সোশ্যাল মিডিয়াতে অনেক ধরনের ভিডিও দেখে থাকবেন । যার মাধ্যমে বলা হয়ে থাকে উচ্চতা বাড়ানো যায় কিভাবে । কিন্তু এটা নির্ভর করে সমস্ত জিনগত ব্যাপারে । কিন্তু তবুও কিছুটা পরিমাণ চেষ্টাচরিত্র করলে বেড়ে ওঠে । তার পাশাপাশি খাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তন আনা অত্যন্ত জরুরী । সঠিক মাত্রার ঘুমের দরকার পড়ে । এবং তার সাথে সাথে দরকার পড়ে খেলাধুলোর । অর্থাৎ আপনি বডিকে যত পরিশ্রম করাবেন ততই আপনার বডি উচ্চতা বিশিষ্ট হবে । এবং উচ্চতা একটা আলাদা পার্সোনালিটি তৈরি করে । প্রথম দেখাতেই বিপরীতে থাকা মানুষটির মনের মধ্যে একটা আলাদা ছাপ ফেলতে সৃষ্টি করে ।আজকের প্রতিবেদন আপনাদেরকে জানাবো কিভাবে আপনার উচ্চতা বাড়াবেন বাড়িতে এই রেমিডি ব্যবহার করে ।

এই মিশ্রণ তৈরি করার জন্য আপনাকে লাগবে কিছুটা পরিমাণ অশ্বগন্ধা পাউডার তার পাশাপাশি লাগবে শতাবরী পাউডার এবং লাগবে কিছুটা পরিমাণ মিছরির দানা । এরপর সমস্ত উপকরণ গুলোকে ভাল করে মিশিয়ে অন্য একটি বায়ুশূন্য পাত্রে রেখে দিতে পারেন আপনি । এরপর এটিকে সেবন করার জন্য লাগবে দুধ । তবে সাধারণত গরুর দুধ হলে চলবে না । তার জন্য আপনাকে নিতে হবে ক্যামেল মিল্ক । যা আপনি খুব সহজেই পেয়ে যাবেন অনলাইন এ । এরপর আবার রাত্রেবেলা দুধের মধ্যে দুচামচ মিশিয়ে খেলে আপনি ফল পাবেন হাতেনাতে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button