বাড়িতেই অসাধারণ কায়দায় এই পদ্ধতিতে ডিম দিয়ে এই রান্নাটি বানালে তার স্বাদ হবে দুর্দান্ত, রইলো পদ্ধতি ভিডিও সহ!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-আমরা সকলেই কম—বেশি ডিম খেতে ভালবাসি। ডিম সিদ্ধ থেকে শুরু করে ঝোল, ভাজা বা তরকারি করে অনেকেই প্রতিনিয়ত খেয়ে থাকি। কিন্তু প্রতিদিন একঘেয়ে রান্না খেতে খেতে আমাদের সকলের স্বাদের পরিবর্তন হয়ে যায়।

তাই মাঝেসাঝে অবশ্যই রান্নার স্বাদে পরিবর্তন ঘটানো দরকার।তাই আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদন এর মাধ্যমে আমরা জেনে নেবো অসাধারণ কায়দায় তৈরিডিমের বাটি পোস্তর রেসিপি। খুব সহজেই ঘরোয়া উপকরণ এর সাহায্যে আপনি বাড়িতেই বানিয়ে নিতে পারবেন এই রান্নাটি। তাহলে আসুন দেরি না করে আমাদের এই প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক। প্রতিবেদনের শেষে অবশ্যই একটি মন্তব্য করে আপনাদের মতামত আমাদের জানাতে ভুলবেন না।

ডিমের বাটি পোস্ত বানানোর জন্য প্রথমেই একটি ছোট বাটিতে চার চামচ পরিমাণ পোস্ত নিয়ে নিন। এরপর চারটি কাঁচালঙ্কা নিয়ে নিতে হবে। এরপর এই দুটিকে একত্র করে একটি মিহি পেস্ট তৈরি করে নিন। অপর একটি পাত্রের মধ্যে তিনটি সিদ্ধ ডিম নিয়ে নিতে হবে। ডিমের উপর এক চিমটে হলুদ গুঁড়া এবং লঙ্কার গুঁড়ো ছড়িয়ে দিন। এরপর গ্যাসে কড়াইতে তেল গরম করে তার মধ্যে অল্প পরিমাণে নুন দিন।

অবশ্যই নুন দিতে ভুলে যাবেন না।কারণ এতে ডিমগুলো ভাজার সময় কড়াইতে লেগে যেতে পারে। যাইহোক এবার ডিমগুলোকে ভেজে নিন। প্রত্যেকটি ডিম সমানভাবে ভাজা হয়ে গেলে একটি অন্য বাটিতে মাঝারি সাইজের পেঁয়াজ কুচির মধ্যে পোস্ত — কাঁচালঙ্কা বাটা, স্বাদমতো নুন, লঙ্কার গুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো দিয়ে দিতে হবে। সবশেষে এতে ঢেলে দিন কাঁচা সরষের তেল। খেয়াল রাখবেন তেল যেন অবশ্যই খাঁটি হয়।

হলুদ গুঁড়ো এবং লঙ্কার গুঁড়ো দেওয়ার ফলে স্বাদ অতি সুন্দর হবে। উপকরণ গুলি মিশিয়ে নেওয়ার পর এর মধ্যে আগে থেকে ভেজে রাখা ডিমগুলিকে ডুবিয়ে ঢাকনা চাপা দিয়ে রাখুন। এই মিশ্রনটিকে ভাপিয়ে নেওয়ার জন্য কড়াইতে অর্ধেক পরিমাণ জল নিয়ে নিন। জলটি ফুটতে শুরু করলে তার মধ্যে ওই মশলা সহ ডিমের বাটিটি বসিয়ে দিন।

অবশ্যই খেয়াল রাখবেন কড়াইয়ের জল যেন বাটির মাঝামাঝি অংশ পর্যন্ত থাকে। না হলে ফোটার সময় হঠাৎ করে বাটির ভিতরে জল ঢুকে যেতে পারে।ভাপানোর সময় গ্যাসের আঁচ হালকা থেকে মাঝারির মধ্যে রাখুন। এরপর প্রায় মিনিট পনেরো সময় ধরে সম্পূর্ণ মিশ্রনটিকে ঢাকা দিয়ে রেখে দিন। নির্দিষ্ট সময় অন্তর ঢাকনা খুলে ভিতরে থাকা বাটিটিকে নামিয়ে ফেলুন। এরপর রুটি বা গরম ভাতের সাথে পরিবেশন করতে পারেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button