মায়ের কানের দুল বিক্রি করে পরিক্ষা দিয়েছিল, প্রথম বেতনেই সে দুল কিনে দিলো ছেলে!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-প্রত্যেক মা-বাবাই চায় যে তার সন্তান যেন ভবিষ্যতে বড় হয়ে মানুষের মতো মানুষ হতে পারে ।নির্দিষ্ট যোগ্যতায় সে যেন চাকরী অর্জন করতে পারে ।এবং এই সমাজে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারে ।তার জন্য ছোটবেলা থেকে চলে কঠিন পরিশ্রম ।শুধুমাত্র ছেলেরা যে সন্তানেরা এই ধরনের পরিশ্রম করে তারা এমন কিন্তু নয় । তার পাশাপাশি এই যুদ্ধে শামিল হয়ে যায় পরিবারের মা-বাবা সকলে ।

তারপর ছেলে বড় হয়ে যখন চাকরি পায় তখন সব থেকে বেশি আনন্দিত হয় মা এবং বাবা ।কিন্তু কোন কারণে ছেলে যদি চাকরি না পেয়ে পায় এবং অমানুষ পরিণত হয়ে যায় তাহলে তার ভেতরে যে কষ্ট হয় তা ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না ।কিন্তু যে ঘটনাটি আপনাদের সামনে আজকে বলতে চলেছি সেটি নজিরবিহীন একটি ঘটনা ।

কলেজে ফর্ম ফিলাপের জন্য তার কাছে টাকা ছিল না । বাবাকে অনেকবার বলার পর ও বাবা কোনরকম ভাবে টাকা যোগার করতে পারেনি । বাড়িতে রয়েছে আরও একটি ভাই । সেই ভাইয়ের পড়াশোনার খরচ চালাতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছে বাবা । এমতাবস্থায় ফর্ম ফিলাপের টাকা না দিতে পারলে ভর্তি হওয়া হবেনা । থমকে যাবে পড়াশোনা । তখন এগিয়ে এসেছিল তার মা । কানের দুল বাবার হাতে তুলে দিয়ে বলেছিলেন যে বিক্রি করে যে টাকা পাওয়া যাবে সে টাকায় যেন ফর্ম ফিলাপ করি আমি ।

তারপর ফরম ফিলাপ হলো পড়াশোনা করলাম চাকরি পেলাম । চাকরি পাওয়ার পর আমি আমার মাকে ঠিক একই কানের দুল কিনে এনে হঠাৎ করেই উপহার দিয়েছি ।কারণ আমি যেদিন মায়ের হাত থেকে এই টাকা নিয়েছিলাম সেদিন মনে মনে স্থির করেছিলাম চাকরি পেতেই হবে আমাকে এবং চাকরি পেয়ে মায়ের এই দুল আমি ফিরিয়ে দেবো । অবশেষে আমি সেটা করতে পেরেছি । ঘটনাটি অবশ্য একটি নজিরবিহীন ঘটনা । এবং এটি একটি বাংলাদেশের এক যুবকের ঘটনা ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button