কলার ফানা দিয়ে অসাধারণ কায়দায় হনুমান ধরলেন যুবক, ব্যাপক ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন: সোশ্যাল মিডিয়াতে আমরা নানান ধরনের ভিডিও ভাইরাল হতে দেখতে পারি। এইসব ভিডিওগুলি বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আমাদের অত্যন্ত আনন্দ দেয়।কারণ অনেক সময় এই ভাইরাল ভিডিও গুলি থেকে আমরা এমন কিছু জিনিস শিখতে পারি যা হয়ত বাস্তব জীবনে কখনোই চট করে শেখা সম্ভব নয়।যেমন কিছুদিন আগেই আমরা নেট মাধ্যমে একটি অসাধারণ ভিডিও ভাইরাল হতে দেখেছিলাম যেখানে খুব সহজেই দেশলাই কাঠির সাহায্যে বন্ধ তালা খোলার ব্যবস্থা করা হচ্ছিল।

এই ভিডিওটি খুব সহজেই ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়েছিল এবং এর দর্শকরা অত্যন্ত প্রশংসা করেছিলেন। শুধুমাত্র নানান ধরনের শিক্ষামূলক জিনিস ভাইরাল হওয়া নয়; নেট মাধ্যমের সাহায্যে আমরা অনেক রকমের প্রতিভার বিকাশ দেখতে পারি।

বর্তমানে করোনা ভাইরাস এর দ্বিতীয় ঢেউ ছড়িয়ে পড়েছে গোটা দেশজুড়ে। শুধুমাত্র ভারতবর্ষ নয় বিশ্বের প্রতিটি দেশেই ছড়িয়ে পড়েছে সং-ক্রমণ। এমতাবস্থায় আর কোন উপায় না থাকায় লকডাউনের পথে থাকতে বাধ্য হয়েছেন সকলে। তাই ঘরব-ন্দী থেকে মানুষ সোশ্যাল মিডিয়াকেই নিজেদের সময় কাটানোর একমাত্র হাতিয়ার হিসেবে বেছে নিয়েছেন।আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদন এর মাধ্যমে আমরা সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল এমন একটি ভিডিওর কথা আলোচনা করবো যা জানতে পারলে যে কোন মানুষ অত্যন্ত অবাক হবেন।

এই ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে কিভাবে একজন অল্প বয়সী যুবক খুব সহজেই দুটি বোতল এবং কলার খোসার সাহায্যে সহজেই একটি বন্য হনুমানকে জা-লে জড়িয়ে ফেলেন। ভিডিওটি আমাদের দেশের নয় কোন বাইরের জায়গার। কিন্তু কোথাকার তা জানা যায়নি।ভিডিওর প্রথম অংশে দেখা যাচ্ছে বেশ দক্ষতার সাথে কয়েকটি কাঠি এবং দুটো বোতল নিয়ে একটি জা-ল তৈরি করেন ওই যুবক।

এবং শেষে ওই জালের মধ্যে কয়েকটি কলা রেখে সেখান থেকে কিছুক্ষণের জন্য সরে যান। এরপর নির্দিষ্ট সময় অন্তর দেখা যায় ওই জালে একটি হনুমান ধরা পড়েছে। সেখানে এসে হনুমানটিকে উদ্ধার করেন ওই যুবক। যদিও এর পর কি হল তা জানা যায়নি। কিন্তু অসাধারণ এই ভিডিওটি দর্শকদের অনেকেরই পছন্দ হয়েছে।

এমনকি ইতিমধ্যেই মাত্র কয়েক দিনে তার দর্শকসংখ্যা মিলিয়ন এর কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছে।খুব শীঘ্রই আমরা এই ধরনের আরো ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখতে পারবো আশা করছি।তাই দিনশেষে অবশ্যই আমাদের সোশ্যাল মিডিয়াকে কুর্নিশ জানানো উচিত।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button