ঘূ-র্ণিঝ-ড় ইয়াসের দা-পটে দীঘার সমুদ্র পাড় থেকে উ-ল্টে গেল বড় চারচাকা গাড়ি, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- জীবনের ঠিক কতটা ঝুঁ-কি নিলে একজন সাংবাদিক হওয়া যায় সেটি প্রমাণ করে দিলেন কলকাতা টিভির সাংবাদিক সুচন্দ্রিমা ভট্টাচার্য । সাংবাদিকদের কাজ থাকে বিভিন্ন ঘটনার চিত্র কে তুলে ধরা এবং সত্যতা যাচাই করেছে সমস্ত ঘটনাবলি কি আমাদের সামনে উপস্থাপন করা। কিন্তু কখনো কখনো জীবনের ঝুঁ-কি নিয়ে সাংবাদিকরা এমন জায়গা খবর তুলে ধরার চেষ্টা করেন যা সত্যিই ভাবিয়ে তোলে আমাদেরকে । শুধুমাত্র জনপ্রিয়তা পাওয়ার জন্য সাংবাদিকদেরকে এমন কিছু জায়গায় পাঠানো হয় যেখানে তার জী-বনের ঝুঁ-কি থাকে প্র-বল প-রিমাণে ।

এর প্রমাণ আমরা বহুবার পেয়েছি ভাল রকম ভাবে প্রমান পেলাম আরো এক আর এই ঘূ-র্ণিঝ-ড়ের সময় । অল্পের জন্য র-ক্ষা পেল সাংবাদিক সুচন্দ্রিমা জীবন। তার সাথে সাথে বাঁচল তার ক্যামেরাম্যান এবং ড্রাইভার এর জীবন ও । আমরা জানি যে ঘূ-র্ণিঝ-ড় ‘যশ’ প্র-বণ শ-ক্তি সঞ্চয় করে দিঘার কাছাকাছি এবং উড়িষ্যা উপকূলের মধ্যবর্তী জায়গাতে আছে পড়েছে । সেই সূত্রে পাশবর্তী অঞ্চলে ব্যাপক ক্ষ-য়ক্ষ-তি যে হবে সেটা আগে থেকেই অনুমান করেছিলো আবহাওয়া দপ্তর ।

কিন্তু এই ক্ষ-য়ক্ষ-তির পরিমাণ যে এতটা পরিমাণে বেশি হবে তা আন্দাজ করতে পারেন নি কেউ ।  একে ঘূর্ণিঝড়ের শক্তি এবং অপরদিকে ভরা কোটাল দুই মিলিয়ে প্রবল জ-লোচ্ছা-সে দেখা দিলে ওই দিন দিঘাতে ভা-সিয়ে নি-য়ে গে-ল এলাকার পর এলাকা । কলকাতা টিভির সাংবাদিক সুচন্দ্রিমা ভট্টাচার্যের কথা আমরা প্রত্যেকে জানি । সাহসী এক নারী যে কোনো কিছুকেই পরোয়া করে না । সত্যকে সত্য বলে তুলে ধরতে ভ-য় পা-য় না। তিনি কোনো রকম কোনো চোখ রাঙ্গানি কে তো-য়াক্কা ক-রেনি এতদিন। সেই সুচন্দ্রিম ভট্টাচার্য অল্পের জন্য রক্ষা পেল কালকে ঘূ-র্ণিঝ-ড় এর হাত থেকে ।

আমরা এর আগে দেখেছিলাম ‘আমফানের’ সময় গ-লা ভ-র্তি জলে সাঁতার কাটে সাংবাদিকতা করতে এই সুচন্দ্রিমা ভট্টাচার্যকে। তবে তিনি তার নিষ্ঠা সাহসিকতা এবং কর্তব্য পরায়ন ছবি আরো একবার তুলে ধরলেন ঘূ-র্ণিঝ-ড়ের সামনে গ্রাউন্ড জিরো থেকে দিঘা তে কি রকম পরিস্থিতি তুলে ধরেছিলেন চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। কিন্তু হঠাৎ করে এতটা পরিমাণে জল চলে আসে যে তাদের গাড়ি ভাসিয়ে নিয়ে চলে যাবার উপক্রম হয় । কোন রকমে অন্যান্য সাংবাদিকদের সহযোগিতা তে গাড়ি থেকে বেরিয়ে আসতে পেরেছে তিনি ।

তার সাথে সাথে বেরিয়ে আসতে পেরেছেন তার ড্রাইভার এবং ক্যামেরাম্যান । বাকি সমস্ত জিনিসপত্র গাড়ির মধ্যে থাকা অবস্থাতেই গা-ড়ি ত-লিয়ে গে-ছে জ-লের ত-লায় । প্রা-ণ হা-তে নি-য়ে এভাবে সাংবাদিক করাকে কুর্নিশ জানিয়েছেন অনেকে । সেই অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসার পর কা-ন্নায় ভে-ঙে প-ড়েন চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য এবং তার ড্রাইভার । লাইভ এর মাধ্যমে ঘটনা তুলে ধরেন পুনরায় সকলের সামনে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button