সমুদ্রের ধার থেকে দারুন কায়দায় অসাধারণ পদ্ধতিতে বালতি দিয়ে বড় কাঁকড়া ধরলেন সুন্দরী যুবতী, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন:বর্তমান যুগে আমরা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে প্রায়শই দেখেছি মানুষ কিভাবে অত্যন্ত কঠোর জীবনযাত্রার মাধ্যমে দৈনন্দিন জীবিকা নির্বাহ করে থাকেন।যেমন কিছুদিন আগেই আমরা একটি ভাইরাল ভিডিওতে দেখেছিলাম, কোন একটি বিদেশের জঙ্গলাকীর্ণ অঞ্চলে এক যুবক অতিকষ্টে অস্ট্রিচ পাখির ডিম সংগ্রহ করে তা কুমড়ো দিয়ে রান্না করে খাচ্ছিলেন।

এই পাখির ডিম সংগ্রহ করতে গিয়ে বেশ অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয় তাকে। কিন্তু তারপরেও ক্ষুধার জ্বালায় পিছিয়ে আসেননি তিনি। কারণ তিনি এমন একটি অঞ্চলে বসবাস করেন যেখানে খুব সহজেই জীবিকা নির্বাহ করে খাদ্য সংগ্রহ করা সম্ভব নয়।

আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আলোচনা করব সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল এমন একটি ভিডিওর কথা,যেখানে দেখা যাচ্ছে এক অসাধারণ সুন্দরী যুবতী সমুদ্রের ধার থেকে দারুন পদ্ধতিতে একের পর এক বড় কাঁকড়া ধরছেন। বেশ কয়েকবার তার হাতে লাগলেও তিনি এই কাজ বন্ধ করেননি।

যুবতীকে দেখে বোঝা যাচ্ছে তিনি কোন একটি সম্ভ্রান্ত পরিবারের সদস্য।কিন্তু তারপরেও হয়তো কোনো কারণবশত এই কাজ করতে বাধ্য হয়েছেন।বেশ কিছুক্ষন ধরে স্টিলের লাঠির সাহায্যে কাঁকড়া ধরার পর ঝুড়িতে সংগ্রহ করে রাখেন তিনি। ভিডিওর পরবর্তী অংশে দেখা যায় অতিরিক্ত দক্ষতার সাহায্যে খুব সহজেই কাঁকড়া গুলিকে খোলস ছাড়িয়ে কেটে ফেলেন ওই যুবতী।সমুদ্রের ধারে বসেই রান্নার প্রস্তুতি শুরু করেন তিনি। সম্ভবত তিনি এই এলাকারই বাসিন্দা।

এরপর পেঁয়াজসহ অন্যান্য খাদ্য সামগ্রী যোগাড় করে আনেন ওই যুবতী। দেখা যায়, চারপাশ থেকে কাঠ এবং শুকনো পাতা সংগ্রহ করে এনে সমুদ্রের ধারে আগুন জ্বালানোর ব্যবস্থা করা হয়। এরপর এর মধ্যে কড়াই বসিয়ে তাতে শুকনো লঙ্কা, পেয়াজ এবং অন্যান্য দ্রব্য দেওয়া হয়। শুকনো লঙ্কা ভালো করে ভেজে নেওয়ার পর এরমধ্যে আগে থেকে খোসা ছাড়িয়ে রাখা কাঁকড়া গুলি ঢেলে দিতে হবে।

কিছুক্ষণ ভালো করে ভাজা ভাজা হয়ে গেলে এতে পরিমানমত জল ঢেলে দিন। সবশেষে ধনেপাতা এবং স্বাদ অনুসারে গরম মসলা ছড়িয়ে গরম গরম পরিবেশন করতে পারেন।এটি এমন একটি রান্না যা আপনি খুব সহজেই অন্য কোন খাদ্যদ্রব্যের সাহায্য ছাড়াই শুধু খেতে পারেন। সাধারণত সমুদ্র নিকটবর্তী অঞ্চলের মানুষের এই ধরনের খাবার খেতে খুব ভালোবাসেন।

তবে অন্যান্য এলাকার মানুষের মধ্যেও এই খাবারের চাহিদা কম নয়। চাইলে আপনারাও এই অসাধারণ ভাইরাল ভিডিওটি দেখে আসতে পারেন। এই ভিডিওটি দেখার পর খুব সহজেই সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রা সম্পর্কে জ্ঞান লাভ হবে অনেকের। নেটিজেনদের মধ্যে এই ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে উঠেছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button